প্রয়াত অভিনেত্রী রীতা কয়রাল

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : প্রয়াত হলেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রীতা কয়রাল। রবিবার সকাল আটটা নাগাদ দক্ষিণ কলকাতায় নেতাজিনগরে নিজের বাড়িতে মৃত্যু হয় তাঁর। লিভার ফেটে  মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এদিন সকালে টলিপাড়ায় ফোন করে মায়ের মৃত্যুর খবর জানিয়েছেন রীত দেবীর মেয়ে। আর্টিস্ট ফোরামের তরফে খবর, এ দিন সকালে বাড়িতে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন অভিনেত্রী। শারীরীক অবনতি দেখে তাঁকে টাটা মেডিক্যাল সেন্টার অ্যান্ড ক্যানসার হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে যাওয়ার পর চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। অভিনেত্রীর মেয়ে ফোন করে মায়ের মৃত্যু সংবাদ টালিগঞ্জ পাড়ায় জানিয়েছেন। সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই লিভার ক্যানসারে ভুগছিলেন অভিনেত্রী। তাঁর চিকিৎসাও চলছিল তাঁর। সাতদিন আগে তিনি শেষ শুটিং করেন। তারপরই অসুস্থতার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাঁকে। সুস্থ হয়ে বাড়িতেও এলেও রবিবার আবারও শারীরিক অবস্থার ফের অবনতি হতে শুরু করে তাঁর। রবিবার দুপুরে তাঁর বাড়িতে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য দেহ নিয়ে আসা হয়। অভিনেত্রীর অকালপ্রয়ানে শোকস্তব্ধ গোটা টলিউড।
প্রসঙ্গত, শুধু টলিউড নয়, নাটক, যাত্রা, থিয়েটার, সিরিয়াল সবকিছুতেই পারদর্শী ছিলেন বড় পর্দা ও ছোট পর্দার রীতা কয়রাল। বহু বছর ধরে অভিনয়ের দ্বারা দর্শকদের বিনোদনের খোরাগ যুগিয়েছেন তিনি। তা সে কোনও খলনায়িকার রোল হোক বা আদরের মা সব রোলেই মাতিয়ে তুলতেন দর্শকদের। অত্যন্ত সাহসী অভিনেত্রী হিসাবে রীতাদেবীর অভিনয় বহু চর্চিত হয়েছে। ‘‌অসুখ’, ‘ইতি মৃণালিনী’, ‘দত্ত ভার্সাস দত্ত’-র মতো ছবিতে তাঁর অভিনয় দর্শকদের ভাল লেগেছিল। তার অন্যান্য জনপ্রিয় সিনেমাগুলির মধ্যে ‘বেয়াদপ’, ‘পারমিতার একদিন’, ‘বড় বউ’, ‘অসুখ, ‘গুণ্ডা’, ‘জীবন নিয়ে খেলা’, ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ দর্শক মনে স্থান পেয়েছিল। এছাড়া বর্তমানে স্টার জলসায় ‘রাখি-বন্ধন’ সিরিয়াল ও জি বাংলায় ‘স্ত্রী’ সিরিয়ালের মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতেন তিনি।