পদ্মাবত ছবিতে হিন্দু ধর্মকে মর্যদা দেওয়া হয়েছে-বলছেন দর্শকরা

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: দেশ জুড়ে বিতর্কের মাঝেই বৃহস্পতিবার মুক্তি পেয়েছে পদ্মাবত। আর প্রথম দিনেই সিনেমা হলগুলোতে মানুষের ব্যাপক ভিড়।সেই সাথে দর্শকরা বলছেন, এই সিনেমায় কোনও ভাবে হিন্দু ধর্মকে বা রাজপুতদের অসম্মান করা হয়নি। কলকাতার বহু দর্শক নিজেদের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে বলছেন, ‘এটি একটি অসাধারণ সিনেমা।

এখানে কোনও বিতর্কের জায়গা নেই।’ অনেক দর্শক বলছেন, এটি একটি দুর্দান্ত সিনেমা। সিনেমা তাহলে এতো বিতর্ক কেন? বিজেপি শাসিত রাজ্যে উগ্রহিন্দুত্ববাদীদের তান্ডব কেন? কেন আগুন লাগানো হয়েছে? পদ্মাবত নিয়ে দেশে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে তা সিনেমার প্রচার বাড়িয়ে দিয়েছে। কেউ কেউ বলছেন, সিনেমার প্রচার করার জন্যই এতো হাঙ্গামা ও বিতর্ক তৈরি করা হয়েছে। অরবিন্দ কেজরিওয়াল, মমতা বন্দোপাধ্যায় প্রমুখ রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব এই ঘটনার নিন্দা করেছেন। এদিন কলকাতার সিনেমা হলের বাইরে পুলিশ মোতায়েন ছিল।

নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। পুরো সিনেমা দেখে অনেকেই বলছেন, দীর্ঘ সময়ের সিনেমা হলেও কোনও এক ঘেয়েমি ভাব আসেনি আর হিন্দু ধর্মের মর্যদা এই সিনেমায় বেড়েছে।সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে হিংসার পথে গিয়ে উগ্রহিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি নোংরা রাজনীতি করে দেশের সম্পদ নষ্ট করেছে, সংবিধান কে অপমান করেছে।