৭১ পরবর্তী দেশে যতগুলো আন্দোলন হয়েছে তার চেয়ে ভয়াবহ আন্দোলন হবে : বিএনপি

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : বাংলাদেশ এখন পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধান বিরোধী দল বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। সেইসাথে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য সর্বদলীয় বৈঠক করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।
দুদু বলেন, দেশের কিছু অঞ্চলে নীরব দুর্ভিক্ষ চলছে। হাওড় বিপর্যয় ও পাহাড় ধ্বসের পরে দেশের উত্তর ও দক্ষিণ অঞ্চল বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলো যৎসামান্য ত্রান পাচ্ছেন না যেগুলো যাচ্ছে আওয়ামী লীগের দলীয় লোকজন সেগুলো লুটপাট করছে। বন্যায় দুর্গত মানুষগুলোকে রক্ষার প্রথম পদক্ষেপ হতে পারে সর্বদলীয় বৈঠক করা। আসুন আমরা দলমত নির্বিশেষে বন্যায় দুর্গত মানুষ গুলোর পাশে দাঁড়াই।

আজ শনিবার দুপুরে বাংলাদেশ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ৭১ কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত “বিএনপির ভাইস-চেয়্যারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদীন ফারুকসহ-সকল রাজবন্দীদের মুক্তির দাবিতে এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।
শামসুজ্জামান দুদু বলেন, আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে। সেই নির্বাচনের আগে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য বিএনপি আলোচনা চায়। সেটি করতে সরকার ব্যর্থ হলে বিএনপি আন্দোলনকেই বেছে নেবে, সে আন্দোলন হবে ৭১ পরবর্তী দেশে যতগুলো আন্দোলন হয়েছে তার চেয়ে ভয়াবহ।
দেশে একটি নীতি নৈতিকহীন আগ্রাসী শাসন চলছে দাবি করে বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের এই নেতা বলেন, শুধু ভোটারবিহীন নয়, সম্পূর্ন পেশি শক্তির জোড়ে তারা ক্ষমতা দখল করে আছে। গুম, খুনকে তারা প্রধান অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। মিথ্যা ও সাজানো মামলায় কে কখন জেলে যাবে একমাত্র আল্লাহ ভালো জানে।
কবি ও প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহারের অপরহরণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ফরহাদ মজহার অপহরণ নিয়ে কত নাটকই আমরা দেখতে পেলাম। কিন্ত শেষ পর্যন্ত জানতে পারলাম যা কিছু হয়েছে তিনি নিজের ইচ্ছায় করেছেন। দেশ ১০০ ভাগ পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে পুলিশ যা বলছে মিডিয়ায় লিখতে হচ্ছে।
এসময় তিনি বিএনপির ভাইস-চেয়্যারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদীন ফারুকসহ-সকল রাজবন্দীদের মুক্তি দাবি করেন।
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টি (জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবীব লিংকন, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, জিনাফ সভাপতি মিয়া মো: আনোয়ার প্রমুখ। (নয়াদিগন্ত)