‘তিন তালাক মুসলমানদের ১৪ শ’ বছরের বিশ্বাসের ব্যাপার’ : পার্সোনাল ল বোর্ড

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : সুপ্রিম কোর্টে তিন তালাক নিয়ে বিশেষ শুনানিতে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি) বলেছে, গত ১৪শ’ বছর ধরে চলে আসা তিন তালাক মুসলিমদের একটি বিশ্বাসের বিষয়। তিন তালাক কীভাবে অনৈসলামিক হতে পারে সে বিষয়েও কেন্দ্রের কাছে প্রশ্ন তুলেছে এআইএমপিএলবি।
মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ডের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ও প্রাক্তন ইউনিয়ন মন্ত্রী কপিল সিবল তার সাফাইতে ওই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ৬৩৭ খ্রিস্টাব্দ থেকে তিন তালাক চলে আসছে। আমরা সেটাকে অনৈসলামিক বলার কে? এটা বিশ্বাসের ব্যাপার। মুসলমানরা গত ১৪শ’ বছর ধরে এ পদ্ধতিতে বিবাহবিচ্ছেদ করে আসছেন। এছাড়া এতে সাংবিধানিক নৈতিকতা ও সমতার কোনো প্রশ্ন ছিল না।
মুসলিম আইনজীবীরা তিন তালাকের বিষয়টাকে রামের অযোধ্যায় জন্ম নেয়া বিষয়ক বিশ্বাসের সঙ্গে তুলনা করেন। সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের সমন্বয়ে গঠিত পাঁচ সদস্যের বেঞ্চের প্রধান বিচারক জে. এস. খেহারকে উদ্দেশ্য করে কপিল বলেন, যদি আমি রামের অযোধ্যায় জন্ম হওয়া বিশ্বাস করি; এটা ধর্মীয় বিশ্বাসের ব্যাপার। সেটা নিয়ে সাংবিধানিক নৈতিকতার কোনো প্রশ্ন তোলা ঠিক নয়।
মুসলমানদের বিবাহ করার সময় চুক্তির ভিত্তিতে কাবিলনামা করা হয় সুতরাং সে অনুযায়ী তালাকও হয়। যদি বিবাহ এবং তালাক চুক্তি হয়, তাহলে অন্যদের সমস্যা কোথায়।
কপিল আরও বলেন, তিন তালাকের বিষয়ে হাদিসে উল্লেখ আছে। মহানবী (সাঃ) এর সময় থেকে এ বিধান চালু আছে। গত সোমবার সুপ্রিম কোর্ট মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে বিবাহ ও বিবাহবিচ্ছেদের বিষয়ে নতুন আইন করার কথা জানিয়েছে। যাতে করে তিন তালাকসহ তালাকের অন্যান্য নিয়ম ভেঙে যাওয়ার কথা ছিল।
তিন তালাক, বহুবিবাহকে চ্যালেঞ্জ করে করা একটি মামলার চতুর্থ দিনের শুনানি ছিল আজ। শিখ, খ্রিস্টান, পারসি, হিন্দু ও মুসলমান ধর্মীয় সম্প্রদায়ের সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চের সামনে ওই শুনানি হয়।