আওয়ামীলীগ নেতা আদেল সহ ৩৯ জনের ফাঁসি বাংলাদেশে

0

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ফেনীর বহুল আলোচিত ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক একরাম হত্যা মামলার রায় গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ঘোষণা করেন ফেনী জেলা ও দায়রা জজ আমিনুল হক। রায়কে ঘিরে আদালত পাড়া ছাড়াও ফেনীতে নেওয়া হয় নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা।
জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির আদেল ও কাউন্সিলর আবদুল্লাহিল মাহমুদ শিবলুসহ ৩৯ জনের ফাঁসি ও প্রধান আসামী বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনার এবং যুবলীগ নেতা জিয়াউল আলম মিস্টারসহ ১৬ জনকে খালাস দিয়েছে আদালত। আদালত সূত্র জানায়, মামলার ৫২ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য নেয়া হয়। এরপর সাফাই সাক্ষ্য, উভয় পক্ষে যুক্তিতর্ক শেষে মামলার রায়ের দিন ধার্য ছিল আজ মঙ্গলবার।
আদালত সূত্রে জানা যায়, স্বাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির আদেল ও কাউন্সিলর আবদুল্লাহিল মাহমুদ শিবলুসহ ৩৯ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত অপর আসামীরা হলো জাহিদ হোসেন চৌধুরী, রুবেল, আবিদুল ইসলাম আবিদ, এমরান হোসেন রাসেল, একরাম হোসেন, রাশেদুল ইসলাম রাজু, চৌধুরী মোহাম্মদ নাফিস উদ্দিন অনিক, আবু বকর ছিদ্দিক, রাহাত মো: এরফান, জিয়াউর রহমান বাপ্পি, টিপু, সাজ্জাদুল ইসলাম পাটোয়ারী সিফাত, টিটু, আরমান হোসেন কাউসার, মোসলে উদ্দিন আসিফ, নিজাম উদ্দিন আবু, আজমির হোসেন রায়হান, বাবলু, নাতি আরিফ, নুর উদ্দিন মিয়া, মো: শাহজালাল উদ্দিন শিপন, পাংকু আরিফ, মামুন, কাজী শাহনাজ মাহমুদ, আবদুল কাইয়ুম, জাহিদুল ইসলাম সৈকত, জাহিদুল ইসলাম, ইসমাইল হোসেন ছুট্টু, মহি উদ্দিন আনিস, মো: সোহান চৌধুরী, কফি উদ্দিন মাহমুদ আবির, মানিক, ফেরদৌস মাহমুদ খান হীরা, সজিব, জসিম উদ্দিন নয়ন, শফিকুর রহমান ময়নাকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়েছে। প্রধান আসামী বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনার এবং যুবলীগ নেতা জিয়াউল আলম মিস্টার ছাড়াও খালাস পেয়েছে আলমগীর ওরফে আলাউদ্দিন, রিপন, মো: মাসুদ, কাদের, মো: সাখাওয়াত, বেলায়েত হোসেন পাটোয়ারী ওরফে বেলাল মেম্বার, ফারুক, কালা মিয়া, মো: ইউসুফ ভূঁইয়া শামিম ওরফে টপ শামীম, ইকবাল, আবদুর রহমান ওরফে রউপ, শরিফুল জামিল ওরফে পিয়াস, সাইদুল করিম পবন ওরফে পাপন, জাহিদ হোসেন ভূঁইয়াকে খালাস দেয় আদালত। আসামীদের মধ্যে ৪৫ জন গ্রেফতার হয়। তাদের মধ্যে ১০ জন জামিন পাওয়ার পর পলাতক রয়েছে। বর্তমানে ৩৫ জন কারাগারে। বাকি ১১ আসামী এখনো অধরা।
প্রসঙ্গত : ২০১৪ সালের ২০ মে আলোচিত ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক একরামকে প্রকাশ্য দিবালোকে ফেনী শহরের একাডেমি রোডে গুলী করে, কুপিয়ে ও  পুড়িয়ে হত্যা করা হয়।