টিডিএন বাংলা ডেস্ক:পরমাণু চুল্লি  তৈরিতে পাকিস্তানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হল চীন। এটিই হতে চলেছে পাকিস্তানের সঙ্গে তৃতীয় বৃহত্তম পরমাণু জ্বালানিকেন্দ্র। গত শুক্রবার দুই দেশের মধ্যে এই বিষয়টি নিয়ে এই চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে।
আন্তর্জাতিক সংবাদ সূত্রে জানা গেছে, ২০৩০ সালের মধ্যেই এটি চালু হবে। এই পরমাণু চুল্লিটি শুরু হলে পাকিস্তানের জ্বালানির চাহিদা পুরোপুরি পূরণ হয়ে যাবে। পাকিস্তানের জাতীয় বিদ্যুৎগ্রিডে ১০০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যোগ হবে এই পরমাণু চুল্লিটি থেকে। চায়না ন্যাশানাল নিউক্লিয়ার কর্পোরেশন (ঈঘঘঈ) এবং পাকিস্তানের অ্যাটোমিক এনার্জি কমিশন (চঅঊঈ)র এই মধ্যে এই পরমাণু চুল্লি নিয়েই চুক্তিটি সাক্ষরিত হয়।

ইতোমধ্যেই চীনের তৈরি পাঞ্জাবের চশমা পরমাণু স্থাপনার চারটি চুল্লি জ্বালানির যোগান ঘটে পাকিস্তানে। মোট চাহিদার শতকরা পাঁচ ভাগ বিদ্যুৎ উৎপাদন করে চীন। প্রতিটি চুল্লির উৎপাদন ক্ষমতা ৩০০ মেগাওয়াট। যেটি আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে আট হাজার ৮০০ মেগাওয়াটে বাড়ানো হবে। পাকিস্তানের মোট জ্বালানি চাহিদার পাঁচ ভাগের এক ভাগ।
চীন এরমধ্যে পাকিস্তানের করাচিতে দুটি চুল্লি তৈরি করছে যার প্রতিটির ক্ষমতা ১১০০ মেগাওয়াট। চুল্লি দুটি চালু হবে ২০২০ ও ২০২১ সালে। এই পরমাণু চুল্লি তৈরির ফলে দুই দেশের মধ্যেকার সম্পর্ক আরো মজবুত হতে চলেছে।