রক্ষীর উদার ব্যাবহারে মুগ্ধ হয়ে ইসলাম কবুল ফিলিপিনো বন্দির

0

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : কারারক্ষীর কাছে সহনশীল ব্যাবহার সাধারণত ডুমুরের ফুল বন্দীদের কাছে। কিন্তু সম্প্রতি আবু ধাবিতে ঘটলো ভিন্ন ঘটনা। জেলকর্মীদের সহনশীল ও উদার ব্যাবহারে মুগ্ধ হলেন সেখানে বন্দি এক ফিলিপিন্সের নাগরিক। শুধু তাই ই নয় এই মধুর ব্যাবহারের কারণ জানতে গিয়ে অবশেষে ইসলাম কবুল করেন বছর তিরিশের ঐ বন্দি।

সম্প্রতি বান্ধবীর সাথে সংযুক্ত আরব আমির শাহিতে ছুটি কাটাতে এসেছিলেন ঐ ব্যক্তি। কিন্তু সেদেশে বিয়ের আগে ঘনিষ্টতা নিষিদ্ধ হওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করেন সেখানের পুলিশ। তারপর জেলে কারারক্ষীদের কয়েক সপ্তাহের ব্যাবহারে অভিভূত হন তিনি।

মুসলিম ঐ জেলকর্মীদের কাছে তিনি জানতে চান, কিভাবে তাঁরা এমন ব্যাবহার শিখেছেন। কারারক্ষীরা জানান, এটা তাঁদের শিক্ষা ও সংস্কৃতির অঙ্গ, ইসলামের নীতি ও আদর্শ অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলেন তাঁরা। প্রত্যেকের নূন্যতম সম্মান ও মর্যাদা দেওয়াটাই তাদের রেওয়াজ।

আর এই কথায় মুগ্ধ হয়ে ইসলাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ দেখান তিনি। আকৃষ্ট হন ইসলামের নীতি ও আদর্শে। বই পড়ে তিনি ইসলামের সহিষ্ণুতা, মানবতা ও নৈতিকতার শিক্ষা লাভ করেন, যা তাকে ইসলামে ধর্মান্তরিত হবার সিদ্ধান্ত নিতে উদ্বুদ্ধ করে।

ফিলিপিনো এই যুবক জানান, আমি মুসলিমদের মধ্যে যে বিনয়ের পরিচয় পেয়েছি তার জন্যই স্বেচ্ছায়, সম্পূর্ণ প্রত্যয়ে ইসলাম গ্রহণ করতে চাই। ওঁরা আমার সহবন্দীদের সাথে সত্যিই খুব সহনশীল ব্যাবহার করেছেন, যা আমাকে মুগ্ধ করেছে। ইসলাম গ্রহণের পর সৃষ্টিকর্তার নির্দেশিত পথেই চলবেন বলে অঙ্গীকার করেছেন আলোর পথের যাত্রী এই নও-মুসলিম।