টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মালয়েশিয়ার অন্যতম রাজনীতিবিদ আনোয়ার ইব্রাহীম বলেছেন, মালয়েশিয়াকে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য সঠিক নেতা খুঁজে পেতে তার দেশের জনগণের অতোটা বেগ পেতে হবে না।

‘আনোয়ার ইব্রাহীমের সাথে আলোচনা’ শিরোনামে রাজস্থান স্কুল অফ ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ কে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে তিনি এ কথা বলেন। এর পূর্বে দেশটির সার্বভৌম সম্পদ তহবিলের (Khazanah Nasional Bhd) সকল পরিচালকের পদত্যাগ করার কারণে আনোয়ার বলেছিলেন, মালয়েশিয়ার সরকারকে পদত্যাগকারী পরিচালকদের শূন্য পদ পূরণ করতে যথেষ্ট বেগ পেতে হচ্ছে।

আনোয়ার ইব্রাহীমকে তার দেয়া বিবৃতিটি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি আসলে এমনটি বোঝাতে চাইনি।’

‘যেকোনো প্রধানমন্ত্রী যিনি দেশের সেবা করার জন্য দপ্তরে বসেছেন, তার কিছু পরিবর্তন আনার অধিকার রয়েছে। কিছু দক্ষ লোকজন পদত্যাগ করেছে। তবে তারা ব্যক্তিগত খাতে তাদের নতুন অবস্থানে টিকে থাকতে পারবে।’

‘খাজানাহ এক্ষেত্রে ভালো উদাহরণ। কিন্তু তারা রিদজা রিদজুয়ানকে নতুন ব্যবস্থাপক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। তিনিও একজন দক্ষ লোক। সুতরাং তাকে তার কাজ করতে দিন।’-আনোয়ার ইব্রাহীম এমনটি জানান।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের আগস্ট মাসের ১ তারিখে মালয়েশিয়ার খাজানাহ (সার্বভৌম সম্পদ তহবিল) এর ব্যবস্থাপক আজমান মুখতারকে ছুটি দিয়ে সেই পদে সাবেক বয়স্ক ভাতার ব্যবস্থাপক শাআহরলি নামের একজনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। বর্তমানে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মুহাম্মদ সার্বভৌম সম্পদ তহবিলের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর পূর্বে নাজিব রাজাক তহবিলটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। নাজিব রাজাক চলতি বছরের মে মাসের ৩১ তারিখ পদত্যাগ করেন।

আনোয়ার ইব্রাহীম বলেন, ‘যদি নব নিযুক্ত ব্যবস্থাপক শাআহরলি একজন জ্ঞানী মানুষ হয়ে থাকেন তবে তার উচিত পূর্বের লোকজনদের সাথে আলোচনা করে কাজ করা। কারণ আগে তহবিলটি তে যারা কাজ করেছিলেন তারা এর শত্রু নয়। তারা তাদের মানসিকতার পরিবর্তন করেননি।’

‘খাজানাহ (সার্বভৌম সম্পদ তহবিল) সঠিক দিক নির্দেশ পাচ্ছে আমরা তা দেখতে চাই। আমরা চাই খাজানাহ একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান হিসেবে সরকারের সাথে সঠিক ভাবে সংযুক্ত থাকুক। তবে আমি এমনটি বিশ্বাস করি না কারণ আমরা ইতিমধ্যেই অনেককেই ছাঁটাই করেছি। আবার আশার বিষয় হচ্ছে অনেকেই খাজানাহতে থেকে গেছেন। কিছু দক্ষ লোকজন এখনো খাজানাহতে আছেন।’ -শেষে আনোয়ার ইব্রাহীম এমনটি জানান।