মায়ানমারে আটক রয়টার্সের দুই সাংবাদিকের মুক্তি চায় রাষ্ট্রসংঘ

0

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মায়ানমারে গ্রেফতার হওয়া ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের দুই সাংবাদিকের জামিন আবেদন নামঞ্জুরের একদিনের ব্যবধানে আবারও তাদের মুক্তির দাবি জানিয়েছে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশন। কমিশনের মুখপাত্র রুপার্ট কলভিলে ওই দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারেরও দাবি জানান। সংস্থাটির পক্ষ থেকে আগেও তাদের মুক্তি দাবি করা হয়েছিল।
গত ১২ ডিসেম্বর আটক হন রয়টার্সে কর্মরত দুই সাংবাদিক ওয়া লোন ও কিয়াও সোয়ি উ। পরে তাদের বিরুদ্ধে মায়ানমারের রাখাইন ইস্যুতে উপনিবেশিক আমলের সরকারি গোপনীয়তার আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। বৃহস্পতিবার দুই সাংবাদিকের জামিন আবেদন শুনানির পর এই রায় দেন আদালত।
জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের মুখপাত্র রুপার্ট কলভিলে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমরা অবিলম্বে তার মুক্তি ও মামলার নিষ্পত্তির দাবি পুনর্ব্যক্ত করছি।’
দুই পুলিশ সদস্যের দেওয়া রাতের খাবারের আমন্ত্রণ রক্ষা করতে গিয়েই আটক হয়েছিলেন ওই দুই সাংবাদিক। প্রথমে আটকের কথা স্বীকার না করলেও কয়েকদিন পর তথ্য মন্ত্রণালয়ের ফেসবুক পাতায় আটকের কথা স্বীকার করা হয়। বৃহস্পতিবার মায়ানমারের আদালতে তাদের জামিন আবেদনের শুনানির সময় দুই সাংবাদিকের পক্ষের আইনজীবী আদালতকে জানান, পুলিশ তাদের কাছ থেকে যেসব তথ্য উদ্ধার করেছে তা প্রকাশ্যেই বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় পাওয়া যাচ্ছে।
মানবাধিকার কমিশনের মুখপাত্র রুপার্ট কলভিলে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘মায়ানমারে মত প্রকাশের স্বাধীনতার ভয়াবহ অবনতি নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন।’ জামিন নাকচ হওয়ার ঘটনায় রয়টার্সের সভাপতি ও এডিটর-ইন-চিফ স্টিফেন জে. অ্যাডলার হতাশা প্রকাশ করেছেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, তাদের গ্রেফতারের প্রায় ৫০ দিনের বেশি হয়ে গেছে। শুনানি চলার সময় তাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে থাকার সুযোগ দেওয়া উচিত।