গলায় ছুরি ধরে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র, আলোচনা অসম্ভব-চীন

0

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : চীনা পণ্যে ধারাবাহিক শুল্ক আরোপের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ‘গলায় ছুরি ধরে রেখেছে’ বলে মন্তব্য করেছে বেইজিং। তাদের দাবি, এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাণিজ্য আলোচনায় অংশগ্রহণ অসম্ভব। চীনা পণ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন করে আরোপিত ২০ হাজার কোটি ডলারের শুল্ক কার্যকর হওয়ার একদিন পর গতকাল মঙ্গলবার চীনের উপ-বাণিজ্যমন্ত্রী ওয়াং শোয়েন এসব কথা বলেন।

গত ২২ মার্চ ৫০ বিলিয়ন ডলার সমমূল্যের আমদানিকৃত চীনা পণ্যে শুল্ক আরোপের জন্য একটি আদেশে স্বাক্ষর করেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের অভিযোগ, চীন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে মেধাসম্পদ চুরি ও স্থানান্তর করছে। জবাবে এপ্রিলের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানি করা ১২৮টি পণ্যের ওপর ২৫ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি করে চীন। এর আর্থিক পরিমাণ প্রায় ৩০০ কোটি ডলার। এ পরিস্থিতিতে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধ শুরুর উপক্রম হয়। গত মে মাসে দুই দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলোচনার পর সম্ভাব্য বাণিজ্যযুদ্ধ স্থগিতের ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে ১৫ জুন ৫০০০ কোটি মূল্যের চীনা পণ্যের ওপর নতুন করে ২৫ শতাংশ আমদানি শুল্ক আরোপের ঘোষণা দেন ট্রাম্প। জবাবে একই মূল্যের মার্কিন পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপের ঘোষণা দেয় চীন। এরপর নতুন করে ২০ হাজার কোটি ডলার মূল্যের চীনা পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন শুল্ক কার্যকর হয়।

 

গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে চীনের উপ-বাণিজ্যমন্ত্রী ওয়াং শোয়েন বলেন, চীন আলোচনার ব্যাপারে রাজি আছে, তবে দুই পক্ষকে একে অপরের দিকগুলো সমভাবে ও মর্যাদার সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রের শুল্ক আরোপ নিয়ে ক্ষোভ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এখন যুক্তরাষ্ট্র এ ধরনের বড় বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা আরোপ করেছে, তারা কারও গলায় ছুরি ধরে আছে। এ পরিস্থিতিতে কীভাবে আলোচনা এগিয়ে যেতে পারে?’