কংগ্রেস কি শুধুই মুসলিমদের দল? মোদি ও গেরুয়া শিবিরের প্রশ্নে বিপাকে রাহুল

0

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : দেশের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস ‘শুধু মুসলিমদের পার্টি’ কি না, এই প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী-সহ বিজেপি নেতৃত্বের তীব্র আক্রমণের মুখে পড়েছেন রাহুল গান্ধি।

সম্প্রতি তিনি দেশের শীর্ষস্থানীয় কয়েকজন মুসলিম বুদ্ধিজীবীর সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন, সেখান থেকেই এই বিতর্কের সূত্রপাত – যার জবাব দিতে তাঁকে এখন বেশ অস্বস্তিতেই পড়তে হচ্ছে।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, দেশে আগামী সাধারণ নির্বাচনের আগে ধর্মীয় মেরুকরণের লক্ষ্যেই যে বিজেপি এই রাস্তা বেছে নিয়েছে তাতে কোনও সন্দেহ নেই – কিন্তু কংগ্রেসের বিভ্রান্তিকর মুসলিম-নীতিও যে এই অবস্থার জন্য অনেকটা দায়ী সেটাও তারা অস্বীকার করছেন না। আসলে বিজেপি হিন্দুত্ববাদী দল হিসেবে পরিচিত হলেও পঞ্চান্ন বছর দেশ শাসন করা কংগ্রেসকে মুসলিমদের দল বলা যাবে কি না, তা নিয়ে এ দেশে বিতর্ক আছে বিস্তর।

সম্প্রতি রাহুল গান্ধি একদল মুসলিম বুদ্ধিজীবীর সঙ্গে বৈঠক করার পর ইনকিলাব নামে একটি উর্দু দৈনিক রিপোর্ট করেছিল, তিনি সেই বৈঠকে কংগ্রেসকে মুসলিমদের দল হিসেবে দাবি করেছেন। আর তারপরই সেই বিতর্কে নতুন করে ইন্ধন পড়েছে। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজমগড়ের জনসভায় গিয়ে বলেছেন, ‘কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট না কি নিজেদের মুসলিমদের দল বলেছেন। একসময় তো তাদের নেতা মনমোহন সিং এমনও বলেছিলেন এদেশের প্রাকৃতিক সম্পদের ওপর সবার আগে অধিকার না কি মুসলিমদের।’ ‘ভাল কথা, কিন্তু আমার প্রশ্ন হল যারা তিন তালাক বিলেরও বিরোধিতা করে – সেই কংগ্রেস কি শুধু মুসলিম পুরুষদেরই দল, মুসলিম মহিলাদের নয়?’

দিল্লির প্রবীণ সাংবাদিক স্মিতা গুপ্তা মনে করেন, এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে অনেকদিন ধরে – আর বিজেপি আজ তার ফায়দা নিতে চাইছে। তিনি বলছেন, ‘গত কয়েক মাস বা বছরে এমন ধারণা তৈরি হয়েছে যে কংগ্রেস মুসলিমদের উপেক্ষা করছে – কারণ তারা মুসলিমদের পার্টি এই তকমাটাকে ভয় পাচ্ছে।’ ‘এখন মুসলিমদের জন্য কী করা যায়, কংগ্রেসের ইশতেহারে তাদের জন্য কী রাখা যায় এটা নিয়ে আলোচনা করতেই রাহুল গান্ধী মুসলিম বুদ্ধিজীবীদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন – কিন্তু বিজেপি এই সুযোগটা নিয়ে কংগ্রেসকে আক্রমণে ঝাঁপিয়ে পড়েছে।’