টিডিএন বাংলা ডেস্ক : কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে অবশেষে শপথ নিলেন জনতা দল সেক্যুলার (জেডিএস) এর নেতা এইচ ডি কুমারস্বামী। কর্নাটকে জেডিএস ও কংগ্রেস জোটবদ্ধ হয়ে সরকার গঠন করল। রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী হলেন কংগ্রেসের জি পরমেশ্বর।
আজ বিকেলে কর্নাটকের বিধানসভা ভবনে শপথগ্রহন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। বিজেপির বাইরে প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রধানরাই এদিন উপস্থিত ছিলেন।
এদিন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী পদে এইচ ডি কুমারস্বামীর পাশাপাশি উপমুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন কর্নাটকের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি জি পরমেশ্বর। তবে এদিন অন্যান্য মন্ত্রীদের শপথগ্রহন হয়নি। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী পদে কুমারস্বামী এবং উপমুখ্যমন্ত্রী পদে জি পরমেশ্বরকে শপথবাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল বাজুভাই বালা। কর্নাটক বিধানসভার স্পিকার হিসাবে কে আর রমেশকুমারের নাম ঠিক করা হয়েছে। কুমারস্বামীর মন্ত্রীসভায় কংগ্রেসের থেকে মন্ত্রী হবেন ২২ জন। জেডিএস থেকে মন্ত্রী হবেন ১২ জন। নতুন মন্ত্রী ও তাঁদের দপ্তর বন্টন নিয়ে বিধানসভায় আস্থাভোটের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আস্থাভোট হবে আগামী ২৪ মে।
এদিনের শপথগ্রহন অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্যভাবে উপস্থিত ছিলেন, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ইউনাইটেড পিপলস অ্যালায়েন্সের (ইউপিএ) চেয়ারপারসন সোনিয়া গান্ধী, কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব ও মায়াবতী, এনসিপি সুপ্রিমো শারদ পাওয়ার, সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি,  দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু, রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) নেতা তেজস্বী যাদব।