এসআইও’র সর্বভারতীয় ছাত্র সম্মেলনে থাকছেন কেজরিওয়াল-ওয়াইসি -মেভানী-খালিদ, প্রস্তুতি তুঙ্গে 

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, নয়াদিল্লী :  শুক্রবার নামাজের মাধ্যমেই শুরু হতে চলেছে ছাত্র সংগঠন স্টুডেন্টস ইসলামিক অর্গানাইজেশন অফ ইন্ডিয়ার  তিন দিনের সর্বভারতীয় ছাত্র সম্মেলন। নয়াদিল্লীর ওকলায় অবস্থিত জামায়াতে ইসলামীর হেড কোয়ার্টারে এই সম্মেলনে যোগ দিতে ইতিমধ্যেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় হাজার দশেক ছাত্র উপস্থিত হয়েছে বলে দাবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দের।

“সংকল্প আত্মসম্মানের, সংগ্রাম ভবিষ্যৎ নির্মাণের” শীর্ষক বিষয়ক সম্মেলনে দেশের প্রায় সকল বড় বড় ছাত্র সংগঠনের প্রতিনিধিদের  পাশাপাশি সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, মজলিশে ইত্তিহাদুল মুসলেমিনের প্রধান ব্যারিস্টার তথা সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি, গুজরাটের তরুন দলিত নেতা বিধায়ক জিগনেশ মেভানী, জেএনইউ এর নেতা উমর খালিদ, জামায়াতে ইসলামী হিন্দের সর্বভারতীয় সভাপতি মাওলানা সাইয়েদ জালালুদ্দিন উমরি,  আহলে হাদিসের সভাপতি আসগর ইমাম মেহেদী, জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের মাওলানা আরসাদ মাদানী, দিল্লীর মাইনোরিটি কমিশনের চেয়ারম্যান জাফরুল ইসলাম খান, মাওলানা কালবে সাদিক,মাওলানা আরসাদ মাদানী, ড.এস কিউ আর ইলিয়াস  সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

Advertisement
head_ads


দেশের ক্যাম্পাস গুলোতে  বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের ফ্যাসিবাদী আগ্রাসনের ফলে দেশের আপামর ছাত্র সমাজ আতঙ্কিত, দিশেহারা। হাইদ্রাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের রোহিত ভেমুলার প্রাতিষ্ঠানিক হত্যা  থেকে শুরু করে জহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র নাজিব আহমেদ কে গুম, জুনাইদ, আখলাখ, আফরাজুল কে পিটিয়ে হত্যা সহ দেশের বর্তমান কীর্তিকলাপপে ছাত্র সমাজ যেন ভয়ে আগ্রাসনের বিরুদ্ধে মুখ খুলে কথা বলতে পারছেন না । তাদের আত্মমর্যাদা বোধ ধীরে ধীরে ক্ষুন্ন হয়ে উঠছে, ভবিষ্যৎ নির্মাণের স্বপ্ন যেন অধরাই থেকে যাচ্ছে! এই পরিস্থিতিতে দেশের আপামর ছাত্র সমাজ কে আবার নতুন করে তাদের আত্মসংকল্প কে বাড়িয়ে ভবিষ্যৎ নির্মাণ এর দিকে এগিয়ে যাওয়ার পথ দেখাতেই এই সম্মেলনের আয়োজন করেছে এস.আই.ও।

এবিষয়ে সংগঠনের সর্বভারতীয় সম্পাদক তথা সম্মেলনের কনভেনর তৌসিফ আহমেদ ম্যাডিকারী জানান, দেশের ক্যাম্পাস গুলোতে  চলমান পরিস্থিতিতে ছাত্র সমাজকে নতুন পথের দিশা দেখাতে ও ছাত্র সমাজকে দেশ গড়ার কারিগর করে গড়ে তোলার লক্ষেই এই ছাত্র সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। সম্মেলনের মাধ্যমেই আগামী ভারতবর্ষে ছাত্র আন্দোলনের রুপরেখা সম্পর্কে জানতে পারবে ছাত্র সমাজ বলেই দাবি তার।

 

এদিকে বিভিন্ন রাজ্য থেকে ইতিমধ্যেই অসংখ্য ছাত্র আসতে শুরু করেছে । দেশের এই বর্তমান পরিস্থিতিতে ছাত্র সমাজ দিশেহারা। ক্যাম্পাস গুলোতে ফ্যাসিবাদী আগ্রাশন চলছে। এহেন সময়ে এস.আই.ও নিজের মর্যাদা ও আত্মসংকল্প বাড়াতে যে ছাত্র সম্মেলনের ডাক দিয়েছে তাতে যোগ দেওয়া নৈতিক কর্তব্য মনে করেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজির হয়েছেন ছাত্ররা।

head_ads