টিডিএন বাংলা ডেস্ক : দেশের বিভিন্ন রাজ্যে চারটি লোকসভা ও ১০টি বিধানসভার উপনির্বাচনে জোর ধাক্কা খেল বিজেপি। বৃহস্পতিবার চারটি লোকসভা আসনের ফল প্রকাশিত হয়েছে। এগুলো হলো উত্তরপ্রদেশের কৈরানা, মহারাষ্ট্রের ভান্ডারা-গেন্ডিয়া, পালঘর ও নাগাল্যান্ডের একটি আসন।
এর পাশাপাশি যে ১০টি বিধানসভার ফল প্রকাশ করা হয়েছে সেগুলো হলো উত্তরপ্রদেশের নূরপুর, কর্ণাটকের রাজ রাজেশ্বরী, বিহারের জোকিহাট, ঝাড়খণ্ডের গোমিয়া ও সিল্লি, কেরলের চেঙ্গান্নুর, মেঘালয়ের অংপতি, পাঞ্জাবের শাহকোট, উত্তরাখণ্ডের খরালি ও এরাজ্যের মহেশতলা।
লোকসভা ভোটের আগে এই উপনির্বাচনের ফলাফলে স্পষ্ট মোদি ম্যাজিক আর কাজ করছে না। কেরল থেকে মেঘালয় সর্বত্রই শঙ্কার ঘণ্টা বেজেছে গেরুয়া শিবিরে।
কেরলের চেঙ্গান্নুরে ২০ হাজার ৯৫৬ ভোটে জয়ী হয়েছেন সিপিএম প্রার্থী সাজি চেরিয়ান। ত্রিমুখী লড়াইয়ে বিজেপি ও কংগ্রেসকে হারিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে কর্ণাটকের রাজ রাজেশ্বরী আসনে ৪১ হাজার ১৬২ ভোটে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেস প্রার্থী এন মণিরত্ন। তিনি বিজেপির প্রার্থী তুলসি মুনিরাজু গৌড়াকে হারিয়েছেন।
এদিকে বিজেপি শাসিত মহারাষ্ট্রেও বিপাকে বিজেপি। মহারাষ্ট্রের ভান্ডারা-গেন্ডিয়া আসনে বিজেপি প্রার্থীর থেকে জয়ী এনসিপি প্রার্থী। যোগীর উত্তরপ্রদেশ রাজ্যেও হারতে হয়েছে বিজেপিকে। উত্তরপ্রদেশের নূরপুরে ছয় হাজার ২১১ ভোটে জয়ী হয়েছেন সমাজবাদী পার্টির প্রার্থী। বিহারে বিজেপির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধা নীতিশ কুমারের দলকেও ফিরিয়ে দিয়েছে জনগণ।
বিহারের জোকিরহাটে ৪১ হাজার ২২৪ ভোটে নীতিশ কুমারের দল জেডিইউয়ের প্রার্থীকে হারিয়ে দিয়েছেন লালু প্রসাদের আরজেডি প্রার্থী। ঝাড়খণ্ডের সিল্লি ও গেমিয়া দুটি আসন থেকে জয়ী হয়েছেন ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার প্রার্থী। মেঘালয়ের আংপাতি আসনে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেস প্রার্থী মিয়ানি ডি শিরা। এর ফলে মেঘালয় বিধানসভায় কংগ্রেস একক বৃহত্তম দলের স্বীকৃতি পেল।
অপরদিকে মহেশতলা বিধানসভার উপনির্বাচনে ৬২ হাজার ৩২৪ ভোট পেয়ে বিজেপি প্রার্থীকে পরাজিত করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী দুলাল দাস। পাঞ্জাবের শাহকোট আসনে ৩৮ হাজার ৮০১ ভোট পেয়ে আকালি প্রার্থীকে পরাজিত করেছেন কংগ্রেস প্রার্থী হরদেব সিং। নাগাল্যান্ডে জয়ী হয়েছেন পিপলস ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী।
এদিকে উত্তরাখণ্ডের থারালি বিধানসভা আসন নিজেদের দখলে রেখে কিছুটা সম্মানরক্ষা করতে সক্ষম হলো বিজেপি। গত বৃহস্পতিবার এই আসনে হওয়া উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষিত হয়। সেখানে বিজেপি প্রার্থী মুন্নিদেবী শাহ প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস প্রার্থী জিতরামকে এক হাজার ৯০০ ভোটের বেশি ব্যবধানে পরাজিত করেছেন। লোকসভার আগে উপনির্বাচনের এই ফলাফলে স্বাভাবিকভাবেই বিজেপি শিবিরে চিন্তার কালো মেঘ নেমে এসেছে।