নাথুরাম গডসে ছিলেন দেশের ১ নম্বর সন্ত্রাসবাদী : আসাদউদ্দিন ওয়েসী

0

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : গান্ধীজির হত্যাকারী নাথুরাম গডসে দেশের একনম্বর সন্ত্রাসী ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) প্রধান ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়েসী। বিজেপি শাসিত মহারাষ্ট্রের পুনেতে অনুষ্ঠিত এক জনসমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় ওই মন্তব্য করেন ওয়েসী। তিনি বলেন, এ কথা বলার জন্য পুলিশ যদি তাকে নোটিশ পাঠায় তাতে কিছু যায় আসে না। তিনি বলেন, ‘পুলিশ কী আমাকে এজন্য নোটিশ দেবে? আমি গডসের বিরুদ্ধে বলবো। ভারতের সবচেয়ে বড় একনম্বর সন্ত্রাসী ছিলেন নাথুরাম গডসে। মহাত্মা গান্ধীকে কে হত্যা করেছিল?’

ওয়েসী বলেন, ‘বিগত ৭০ বছর ধরে আমদের ভয় দেখানো হচ্ছে। কিন্তু আমরা ভয় পাওয়ার নই। আপনারা বেশি বেশি করে কী করতে পারেন, আপনারা জীবনে মেরে ফেলতে পারেন, তো মেরে দিন। কিন্তু আমরা যদি বেঁচে থাকি এখানেই বাঁচব এবং যদি মারা যাই তো এখানেই মরবো।’ আসাদউদ্দিন ওয়েসী বলেন, ‘ভারতীয় মুসলিমরা সিরিয়ায় যাবে না, বা পাকিস্তানেও যাবে না। যারা পাকিস্তানে যেতে চেয়েছিলেন তারা আগেই সেখানে চলে গেছেন। আমাদের পূর্বপুরুষরা ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে লড়াই করেছেন, শহীদ হয়েছেন। তারা কখনো মুচলেকা দিয়ে ব্রিটিশদের সামনে বশ্যতা স্বীকার করেননি।’

তিনি ওই সমাবেশে কেন্দ্রীয় সরকারের আনা তাৎক্ষণিক তালাক বিল ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তীব্র সমালোচনা তাকে শত্রু বলে অভিহিত করেন। ওয়েসী বলেন, ‘মিস্টার মোদি, চোখ খুলে দেখুন এবং মনের পর্দা সরিয়ে ফেলুন। মুসলিম নারীদের উপরে আপনার কোনো সহানুভূতি নেই। আপনি আমাদের দুশমন এবং আমাদের না-ইনসাফির (অবিচারের) ব্যবস্থাপনা করছেন। তিনি বলেন, আমাদের মা ও বোনেরা মিছিলে অংশ নিয়ে অত্যাচারী শাসন ব্যবস্থার বিরুদ্ধে বার্তা দিয়েছেন। এবং আমাদের তরুণ ও বুজুর্গদের বার্তা দিয়েছেন যে আপনাদেরও শরীয়া রক্ষার জন্য দাঁড়াতে হবে।

tdn_bangla_ads