টিডিএন বাংলা ডেস্ক : তিন তালাক বিতর্ক থামতে না থামতেই দেশের প্রতিটি জেলায় ‘দারুল কাজা’ অর্থাৎ ইসলামিক শরিয়াহ আদালত খোলার ঘোষণা করেছে মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ড। বোর্ডের এহেন সিদ্ধান্তে দেশজুড়ে ফের বিতর্ক দেখা দিয়েছে। ফের ধৰ্ম নিয়ে প্রশ্ন ওঠা শুরু হয়ে গিয়েছে। ভারতীয় জনতা পার্টির নেতাদের কথায়, দেশের সংবিধান ছাড়া কোনও ধরণের সমকক্ষীয় আদালত থাকা সমীচিন নয়। অন্যদিকে, এই সিদ্ধান্ত শীর্ষ আদালতের সিদ্ধান্ত অনুসারেই নেওয়া হয়েছে বলে সাফাই দিয়েছে ল’ বোর্ড।

দারুল কাজ ইসলামিক শরিয়াহ (ইসলাম ধর্মের আইন) অনুযায়ী গঠিত একটি বিশেষ আদালত। এই আদালতে মুসলিমদের ব্যক্তিগত বিষয় যেমন – বিবাহ, তালাক, সম্পত্তির ভাগ বাটোয়ারা, মেয়েদের সম্পত্তিতে অধিকার দেওয়া ইত্যাদি বিষয়গুলির সমাধান করা। দারুল কাজায় একজন অথবা তার অধিক বিচারক থাকতে পারেন, যাকে কাজী বলা হয়। বর্তমানে অল ইন্ডিয়া পার্সোনাল ল’ বোর্ডের অধীনে গোটা দেশে ৫০ এর অধিক দারুল কাজা পরিচালিত হচ্ছে। ১৯৯৩ সাল থেকে দারুল কাজা পরিচালনা করছে বোর্ড। এইবার তারা দেশের প্রতিটি জেলায় একটি করে দারুল কাজা স্থাপন করার লক্ষ্যে কাজে নেমেছে।

সম্প্রতি মুসলমানদের কিছু ব্যক্তিগত বিষয় যেমন তিন তালাক, নিকাহ হালালা সুপ্রিমকোর্ট পর্যন্ত পৌঁছেছে। কেন্দ্র সরকার পর্যন্ত তিন তালাকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এমতাবস্থায় বোর্ডকেও নিজেদের স্ট্রাটেজি বদলাতে হয়েছে। বোর্ডের কথায়, মুসলমানদের ব্যক্তিগত বিষয়গুলি দারুল কাজায় নিষ্পত্তি করা হবে। একমাত্র দারুল কাজার মাধ্যমেই কম খরচে বিতর্ক মিটিয়ে ইসলাম অনুযায়ী সমাধান করা সম্ভব হবে।