হিন্দু মহাসভার ক্যালেন্ডারে কাবা শরীফ ও তাজমহল সহ ৭ মসজিদকে বলা হল মন্দির, ক্ষুব্ধ মুসলিমরা

0
টিডিএন বাংলা ডেস্ক : হিন্দু মহাসভার আলীগড় শাখার পক্ষ থেকে বিতর্কিত ক্যালেন্ডার প্রকাশ করায় মুসলিমরা ক্ষুব্ধ হয়েছেন। হিন্দু নববর্ষ উপলক্ষে বিশ্বখ্যাত ঐতিহাসিক স্মৃতিসৌধ তাজমহলসহ ৭ মসজিদ ও মুঘল আমলের স্মৃতিস্মারককে মন্দির বলা হয়েছে। এমনকী ক্যালেন্ডারটিতে কাবা শরীফের ছবি দিয়ে তাকে মক্কেশ্বর মহাদেব মন্দির হিসেবে দেখানো হয়েছে!
হিন্দু মহাসভার রাষ্ট্রীয় সচিব পূজা শুকুন পাণ্ডের দাবি, দেশকে ‘হিন্দু রাষ্ট্র’ ঘোষণার লক্ষ্যে ওই ক্যালেন্ডার প্রকাশ করা হয়েছে। ওই ঘটনায় অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ইমামে ঈদগাহ মাওলানা খালিদ রশিদ ফিরিঙ্গি মহলী বলেছেন, ‘ওই দাবি ভিত্তিহীন। মসজিদকে মন্দির বলে অভিহিত করা আসলে মুসলিমদের অনুভূতিতে আঘাত দেয়া এবং দেশের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবনার বিরুদ্ধ বিষয়। ওরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চাচ্ছে। বিদ্বেষ ছড়ানো লোকেদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া উচিত।’
পবিত্র কাবা শরীফের ছবি দিয়ে তাকে মক্কেশ্বর মহাদেব মন্দির হিসেবে দেখানো হয়েছে
মাদ্রাসা দারুল উলুম আশরাফিয়া’র মুহতামিম মাওলানা সেলিম আশরাফ কাশেমী বলেন, ‘ভারতে এ ধরণের যেসব বিতর্কিত বিবৃতি আসে তা পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ। বাস্তবের সঙ্গে যার কোনো মিল নেই। এসব বিবৃতি তাদের দেউলিয়াপনার প্রকাশ। এসব লোকেদের ভালো ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা করানো উচিত।’
বিতর্কিত ওই ক্যালেন্ডারটিতে বিশ্বখ্যাত আগ্রার ঐতিহাসিক তাজমহলকে তেজো মহালয় শিব মন্দির, অযোধ্যার বাবরী মসজিদকে রাম মন্দির, দিল্লির  কুতুব মিনারকে বিষ্ণু স্তম্ভ, মধ্যপ্রদেশের কামাল মাওলা মসজিদকে ভোজশালা এবং কাশীর জ্ঞানব্যাপী মসজিদকে বিশ্বনাথ মন্দির হিসেবে দেখানো হয়েছে।