আম্বাতি রাইডুর দুর্ধর্ষ শতরান, প্লে-অফে চেন্নাই

0
স্পোর্টস ডেস্ক, টিডিএন বাংলা : প্লে-অফের টিকিট থেকে ১টি জয় দূরে ছিল চেন্নাই সুপার কিংস। ম্যাচে প্রতিপক্ষ এবারের আসরের সেরা দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ হওয়াতে জয়ের ব্যাপারে নিশ্চয়তা ছিল না দুইবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নদের। তবে আম্বাতি রাইডুর সেঞ্চুরি এবং শেন ওয়াটসনের হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে সহজেই সাকিব আল হাসানের হায়দরাবাদকে হারিয়েছে চেন্নাই। দ্বিতীয় দল হিসেবে তারা নিশ্চিত করেছে প্লে’অফের টিকিট।
হায়দরাবাদের করা ১৭৯ রানের জবাবে খেলতে নেমে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে ৮ বল বাকি থাকতেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় চেন্নাই। ১২ ম্যাচে এটি তাদের অষ্টম জয়। অন্যদিকে টানা ৬ ম্যাচ জেতার পর হারের মুখ দেখলেন ধাওয়ানরা।
রান তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই ১৩৪ রান যোগ করেন রাইডু এবং ওয়াটসন। একপর্যায়ে মনে হচ্ছিলো বিনা উইকেটেই লক্ষ্যে পৌঁছে যাবে চেন্নাই। তবে ১৪তম ওভারে ব্যক্তিগত ৫৭ রানের মাথায় রানআউটে কাটা পড়েন ওয়াটসন। ৫ চার এবং ৩ ছক্কার মারে ৩৫ বল খেলে এই রান করেন তিনি।
ওয়াটসন ফিরে গেলেও দলের জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন রাইডু। চলতি আসরে দুর্দান্ত ব্যাট করতে থাকা রাইডু পেয়ে যান চলতি আসরের তৃতীয় এবং নিজের আইপিএল ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি।
অপরাজিত সেঞ্চুরিতে ঠিক ১০০ রান করেন রাইডু। ৬১ বলের ইনিংসে ৭টি করে চার-ছক্কা মারেন তিনি। ১৪ বলে ২০ রান করে অপরাজিত থাকেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।
হায়দরাবাদের পক্ষে ১টি উইকেট নেন সন্দ্বীপ শর্মা। সতীর্থদের মতোই বল হাতে ভালো করতে পারেননি সাকিব আল হাসান। ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৪১ রান খরচায় উইকেটশূন্য থাকেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার।
এর আগে চেন্নাই সুপার কিংসের আমন্ত্রণে টসে হেরে ব্যাট করতে নামে হায়দরাবাদ। ব্যর্থ হয় উদ্বোধনী জুটি। ৯ বল খেলে মাত্র ২ রান করে ফেরেন অ্যালেক্স হেলস। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতেই ইনিংসের গতিপথ পাল্টে দেন ধাওয়ান এবং উইলিয়ামসন। মাত্র ৭৫ বলে ১২৩ রান যোগ করেন এই দুই ব্যাটসম্যান।
ইনিংসের ১৬তম ওভারের শেষ বলে এবং ১৭তম ওভারের প্রথম বলে পরপর ফিরে যান ধাওয়ান এবং উইলিয়ামসন। চলতি আসরে ব্যক্তিগত ৭ম ফিফটিতে ৩৯ বলে বলে ৫১ রান করেন কিউই অধিনায়ক। ১০ চার এবং ৩ ছক্কার মারে ৪৯ বল খেলে ৭৯ রান করেন ধাওয়ান।
এই দুই ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর শেষের ২৩ বলে ৩৮ রান করে হায়দরাবাদ। মনিশ পান্ডে ৬ বলে ৫ রান করে আউট হন। দ্বীপক হুদা ১১ বলে ২১ এবং সাকিব ৬ বলে ১ চারের মারে ৮ রান করে অপরাজিত থাকেন।
চেন্নাইয়ের পক্ষে ২টি উইকেট নেন শার্দুল ঠাকুর।
tdn_bangla_ads