ষাটোর্ধ্ব পিতা দিনমজুর, দারিদ্রতাকে জয় করে মাধ্যমিকে বসলেও পড়া বন্ধ হবার আশঙ্কা আসিকের

0

সুলতানা পারভিন, টিডিএন বাংলা, জগদীশপুর: আসিকের প্রিয় বিষয় জীবন বিজ্ঞান। মাধ্যমিকের পর জীববিদ্যা নিয়ে পড়ে একজন ভালো শিক্ষক হতে চায়৷ শুধু স্বপ্ন দেখলেই তো হবেনা। কারন মাধ্যমিকের পর বাবা-মা আর পড়াতে পারবে কিনা তা নিয়ে এখনই চিন্তার ভাঁজ পড়েছে মেধাবী আসিকউদ্দিনের কপালে।

দারিদ্রতা পরিবারের নিত্যদিনের সঙ্গী৷ পরিবারের একমাত্র উপার্জনশীল বৃদ্ধ বাবা৷ ষাটোর্ধ্ব দিনমজুর কুদ্দুস পুরকাইতের মেধাবী ছেলে মো: আসিকউদ্দিন পুরকাইত, মেয়ে রেনুজা খাতুন জগদীশপুর সিতিকন্ঠ ইনস্টিটিউশন থেকে এবার মাধ্যমিক দিচ্ছে। বরাবরই আসিক পরীক্ষায় ভালো ফল করে আসছে৷ পারিবারিক আয় কম সত্ত্বেও পড়াশোনা বন্ধ করেনি তারা৷ অনেক সময় না খেয়ে, অর্ধাহারে রাত কাটায় ভাই বোন৷

Advertisement
head_ads

বৃদ্ধ বাবা আজও দিনমজুরি করে তাদের লেখাপড়া ও সংসার চালাচ্ছেন৷ তাদের প্রচেষ্টা কোনো খামতি রাখেননি মা৷ বাবার কথায়, ‘ছেলেমেয়ে দুটি লেখাপড়া করে নিজেদের ভবিষ্যৎ গড়ে অক্ষমতার সময় আমাদের হাত ধরবে সেই আশাতেই এই বয়সেও হাড় ভাঙা পরিশ্রম করে চলেছি৷’ মেধাবী আসিক, রেনুজাদের পাশে কি আগামীতে কেউ কি দাঁড়াবেনা? মাধ্যমিকের পর তাদের পড়াশুনা কি সত্যিই বন্ধ হয়ে যাবে? প্রশ্নগুলি কিন্তু রয়েই যাচ্ছে।

head_ads