জমিয়তে আহলে হাদীসের সভায় ন্যায়ের প্রতিষ্ঠা ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার ডাক

0

নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, বাঁকুড়া : বাঁকুড়া জেলার কোতলপুর থানার অন্তর্গত শাহবাজ চক গ্রামে অনুষ্ঠিত হলো জমিয়তে আহলে হাদীস পশ্চিমবাংলার প্রকাশ্য সভা। মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ সাহেবের ক্বেরাতের মাধ্যমে এবং জমিয়তে আহলে হাদীস পশ্চিমবাংলার রাজ্য সম্পাদক আলমগীর সরদারের সভাপতিত্বে এদিনের আলোচনা সভা শুরু হয়।

প্রধান আলোচক ছিলেন সংগঠনের রাজ্য সহ সম্পাদক আইনুল হক সাহেব। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, মুসলিম সমাজে ধর্মের নামে প্ৰচলিত যা কিছু চলে তার অধিকাংশ ক্বুরআন হাদীসের দৃষ্টিতে  প্রামানিকতার অভাব। আমরা মুখে বলি ক্বুরআন হাদীস মানি বাস্তবে তার ভিন্নতা দেখতে পাই। তাই, আমাদের সুষ্ঠ সমাজ ও  হারানো গৌরব অর্জন করতে চাইলে আমাদের ফিরে যেতে হবে উৎস মূলে। আর সে উৎস মূল হলো একমাত্র ক্বুরআন ও নবীর সুন্নাহ। আর সে সূন্নাহকে আকড়ে ধরা আমাদের একান্ত কর্তব্য। তিনি সবাইকে ক্বুরআন ও সহীহ হাদীসের মর্ম মূলে আশ্রিত হবার আহবান জানান।

Advertisement
head_ads

বক্তব্য রাখেন শাইখ আরিফুল ইসলাম মাদানী। তিনি বলেন, শরীয়াতের দৃষ্টিতে পাপের জগতে সবচেয়ে বড় পাপ শির্ক। অথচ এ পাপ সম্পর্কে মুসলিম সমাজ খুব বেশি সচেতন নয়। যার জন্য সমাজ আজ পাপ পঙ্কিলতায় নিমজ্জিত। সেই সাথে মুসলিম সমাজে এতো দ্বিধা-দ্বন্দ্বের মধ্যে নিপতিত। সুতরাং আমাদের উচিত সমস্ত রকমের শির্ক থেকে বেঁচে থাকা, আর অন্যকেও বাঁচানোর চেষ্টা করা। আর আমাদের সে লক্ষ্যে কাজ করে যেতে হবে।

আরও বক্তব্য রাখেন উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার জেলা সম্পাদক শাইখ আব্দুল হামিদ ফাইজী। তিনি বক্তব্য রাখেন ইত্তেবায়ে সুন্নাত নিয়ে। তিনি বলেন, আমরা কুরআন হাদিস মানি এ কথা মুখে বলি বটে, তবে আমাদের মধ্যে ইত্তেবায়ে রসূল অর্থাৎ রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আনুগত্য খুবই কম। তিনি বলেন, মুসলিমদের মধ্যে সমস্যা নিরসন করতে চাইলে ইত্তেবায়ে সূন্নাহ ছাড়া কখনোই তা সম্ভব নয়। তাই, আমাদের উচিত ধর্মের যা কিছু করবো তাতে রসূলের স্ট্যাম্প আছে কিনা দেখে নেওয়া।

সভার সভাপতি তথা রাজ্য সম্পাদক আলমগীর সরদার বলেন, সমাজ সংস্কার করতে আমাদের সচেষ্ট হতে হবে। মানুষ হিসেবে আমাদের দায়িত্ব কর্তব্য অনেক, সে দায়িত্ব পালনে আমাদেরকেই এগিয়ে আসতে হবে। তিনি শ্রেষ্ঠত্বের মাফকাটি হিসাবে ক্বুরআনের আয়াত দিয়ে বলেন, ন্যায়ের আদেশ আর অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলাতেই উম্মাতে মুহাম্মাদীর শ্রেষ্ঠত্ব। সুতরাং সে দায়িত্ব পালনে তিনি সবাইকে উদাত্ত আহবান জানান। উপস্থিত ছিলেন উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাট থানার সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, ঘোড়ারাস মাদ্রাসার সম্পাদক আব্দুল ওয়াজেদ আলী সাহেব, তাছাড়া বাঁকুড়া জেলার সভাপতি নাজিরুদ্দিন সাহেব, ক্যাশিয়ার ইসমাঈল সাহেব, সফিক খাঁন প্রমূখ।

head_ads