নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : সরকার নিবন্ধীকৃত অরাজনৈতিক গণ-সংগঠন সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের ১৫তম প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে আজ কোলকাতার মৌলালি যুব কেন্দ্রে কেন্দ্রীয় কনভেনশন অনুষ্ঠিত হয়। আজকের এই কনভেনশনে উপস্থিত ছিলেন কলকাতার রেড রোডের ইমামে ঈদাইন কারী ফজলুর রহমান, রাজ্য সভার সাংসদ আহমদ হাসান ইমরান, জামায়াতে ইসলামী হিন্দের রাজ্য সভাপতি মুহাম্মদ নুরুদ্দিন, কেরলের বিশিষ্ট সমাজসেবী হাজী ড. সিপি ভাবা আলি, দলিত নেতা সুকৃতি রঞ্জন বিশ্বাস, শিক্ষাবিদ ড. জাহিদুল সরকার, অধ্যাপক জনাব শাহ আলমসহ কেন্দ্রীয় ও রাজ্য স্তরের নেতৃত্ব ও সদস্যরা।

কলকাতার রেড রোডের ইমামে ঈদাইন কারী ফজলুর রহমান দুঃখ করে বলেন, আমাদের মধ্যে অনেক বিভক্তি আছে, ভাগ হয়েই যাচ্ছে, কিন্তু কবে আমরা বুঝবো যে আমরা মুসলিম জাতি! তিনি আরো বলেন, আমি মৃত্যুর আগে পর্যন্ত মুসলিমদের স্বার্থেই কথা বলবো। আমাদের মধ্যে যত ভাগই হোক না কেন, যখন মুসলিম কওম, মিল্লাত বা উম্মতের কথা আসবে তখন আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। তাতেই আমরা আমরা নিজেদের সমস্যার সমাধানের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যেতে পারব। তাছাড়া কেরলের বিশিষ্ট সমাজসেবী হাজী ড. সিপি ভাবা আলি বলেন, কেরলের মতো বাংলায় মুসলিমদেরকে রাজনীতিতে সক্রিয় ভাবে অংশগ্রহণ করতে হবে সেই সাথে বাংলার রাজনীতিতে মুসলিমদের কর্তৃত্ব স্থাপন করতে হবে।

সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের রাজ্য সম্পাদক মোহাম্মদ কামরুজ্জামান সাহেব বলেন, সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশন ১৫ বছরে পদার্পণ করল। দীর্ঘ এই পনেরো বছর ধরে জনগনের কল্যানে বহু আন্দোলন, বহু কর্মসূচি গ্রহণ করেছে এই সংগঠন। এই সংগঠন সরকারের জন বিরোধী নীতির কখনও সমর্থন করেনি। এই কনভেনশনে তিনি শুধু সংখ্যালঘু মুসলমানদের কথা নয়, বরং দলিত ও আদিবাসীরা যে বঞ্চনার শিকার, তার উপর জোরালো বক্তব্য রাখেন। তিনি আরও বলেন, যেখানেই অসহায় মানুষের আর্তনাদ শোনা যাবে, সেখানেই সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে।