আদালতের নির্দেশ অমান্য বর্ধমানের জেলাশাসককে জেলে ভরার নির্দেশ

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, বর্ধমান: সরকার জমি অধিগ্রহণ করার পরও সেই টাকা জমির মালিককে পরিশোধ না করার অভিযোগ তুলে পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তবের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করল জেলা আদালত। আদালত সূত্রে জানা গেছে, আগামী সোমবার জেলাশাসককে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেদিন তাঁকে বর্ধমান জেলা সংশোধানাগারে পাঠানো হবে। ওইদিন যদি জেলাশাসক হাজিরা না দেন তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ারও ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে।

বর্ধমান শহর লাগোয়া গোদা এলাকায় উপনগরী তৈরির জন্য জমি অধিগ্রহণ করেছিল জেলা প্রশাসনের ভূমি অধিগ্রহণ দফতর। সেই সময় জমির দাম বাবদ সরকার ক্ষতিপূরণ দিয়েছিল শতক পিছু ৫ হাজার ৮৮৬ টাকা। দামে খুশি না হয়ে জমির মালিক আব্দুল রহিম, আব্দুল আজিজ ও আব্দুল আলম আদালতে মামলা করেন। ২০১২ সালে আদালত শতক পিছু ৩৫ হাজার টাকা দাম দেওয়ার নির্দেশ দেয়। তার সঙ্গে ১৫ শতাংশ হারে সুদ দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়।

আইনজীবীরা জানান, হাইকোর্ট থেকে ওই নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ আনতে না পারলে জেলাশাসককে জেলে যেতেই হবে। ওই তিন জমির মালিকের এক একর ৭৩ শতক অধিগৃহীত জমির জন্য সরকারের কাছে পাওনা রয়েছে ১ কোটি ৯২ লক্ষ টাকা।

যদিও জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, “এখনও আদালতের নির্দেশ হাতে পাইনি। নির্দেশ পেলে তা দেখে সেই মতো আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”
যদিও বর্ধমান আদালতের অন্য আইনজীবীদের দাবি, এমন নির্দেশ সচরাচর শোনা যায় না।