অবশেষে তলিয়ে যাওয়া বাস থেকে উদ্ধার হল ৩৬ টি মৃতদেহ

0

কিবরিয়া আনসারী, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ : সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যে ৬ টে পর্যন্ত পুরো এগারো ঘণ্টার চেষ্টায় খোজ মিলল যাত্রীবোঝায় বাসের৷ একাধিক ক্রেন দিয়ে বাসটিকে তুলা হয়। কেন্দ্রীয় এন ডি এফ আর এর কর্মীরা গাড়ির কাচ ভেঙ্গে ৩৬ টি মৃতদেহ উদ্ধার করল।

Advertisement
head_ads

দৌলতাবাদ থানার বালুরঘাটের ভৈরব নদীর রেলিং ভেঙ্গে সরকারি বাস নদীতে পড়ে যায়। তারপর থেকে বাসের আর সন্ধান পাওয়া যায়নি৷ প্রায় দশ ঘন্টা তল্লাশি চালানোর পর। অবশেষে দেখা মিলল বাসের।

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস নদীতে পড়ে যাওয়াই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। তারপরই দৌলতাবাদে হইচই শুরু হয়ে যায়৷ সকাল ৮ টার পর শুরু হয় উদ্ধার কাজ৷ দেরিতে উদ্ধার কাজ হওয়াই জনতার ইট, বৃষ্টির স্বীকার পুলিশ কর্মীরা। লাগিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের গাড়িতে আগুন।

৪ ঘন্টা পর নদীতে নামানো হয় ডুবুরি। এমনকি স্থানীয়রাও উদ্ধার কাজে হাত লাগায়। প্রায় ১০ ঘন্টা চেষ্টার পর খোজ মিলল বাসের। ক্রেনের মাধ্যমে উপরে তোলা হয় বাস কে। তারপরি বাসের ভেতর দেখা যায় একাধিক মৃতদেহ। একের পর বাসের ভেতর থেকে বেরোতে থাকে মৃতদেহ। প্রায় ৩৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করল কেন্দ্রীয় এন ডি এফ আর এর কর্মীরা।

ঘটনায় নদীয়া ও মুর্শিদাবাদে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। কান্নাই ভেঙ্গে পড়েছে মৃতের আত্মীয়রা।

head_ads