মুর্শিদাবাদের সর্বত্র অশান্তির বাতাবরণ বইলেও ফারাক্কায় শান্তিপূর্ণ নমিনেশনে নজীর, প্রার্থী দিলো সবপক্ষ

0
নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ : মনোনয়ন কে কেন্দ্র করে যেভাবে চারিদিকে  অশান্তির বাতাবরণ তৈরি হয়েছিলো তাতে বিরোধীরা বেশিরভাগ আসনেই প্রার্থী দিতে পারেন নি। যেখানেই প্রার্থীরা মনোনয়ন নিয়ে গেছেন সেখানে লাঠিসোঁটা আর বোমের আঘাত নিয়ে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়েছে।গত সোমবার ছিলো মনোনয়নের  দিন। কিন্তু শেষ দিনেও সন্ত্রাসের   চিত্র বহাল ছিলো। ফলে মুর্শিদাবাদের বেশিরভাগ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছে তৃনমূল কংগ্রেস। কিন্তু গোটা জেলার থেকে একমাত্র ভিন্নরুপ লক্ষ করা গেলো ফারাক্কা বিধানসভা এলাকায়। এই এলাকার কংগ্রেস বিধায়ক মইনুল হকের প্রচেষ্টায় সব থেকে শান্তিপূর্ণ ভাবে নমিনেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। প্রার্থী দিয়েছে সব রাজনৈতিক দল। কোথাও কোনো গন্ডগোল হয়েছে তার কোনো নজীর নেই। ফলে শাসক থেকে বিরোধী সব রাজনৈতিক দল ফরাক্কার পুলিশ ও প্রশাসনের কাজের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। এদিকে ফরাক্কা  ব্লক প্রশাসন  যা পারল জেলার  অন্য ব্লক  তা পারল না কেন? এই নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে। ফরাক্কার ব্লক প্রশাসন ও রাজনৈতিক দলগুলির মানষিকতা থেকে   শিক্ষা নেওয়া উচিত  মহকুমার অন্য ব্লক ও পুলিশের। ।
    জানা গেছে, ফরাক্কা ব্লকে নয়টি গ্রামপঞ্চায়েতের মোট আসন ১৪৭। পঞ্চায়েত সমিতির মোট আসন ২৭ ও তিনটি জেলাপরিষদের আসন রয়েছে। বরাবরি ফরাক্কা ব্লক কংগ্রসের শক্তঘাটি। আজ পর্যন্ত ফরাক্কায় নির্বাচনকে ঘিরে কোন রাজনৈতিক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলির মধ্য উওেজনা থাকলেও শান্তি পূর্ণ ভাবে ভোট বৈতরণ পার হয়েছে। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটলনা। নির্বাচনের মনোনয়ন পর্ব সম্পূর্ণ ভাবে শান্তিতে শেষ হয়েছে। অন্যদিকে ১৪৭ টি গ্রামপঞ্চায়েতের আসনে শাসক দল মনোনয়ন জমা দিয়েছে ২০৪ টি, কংগ্রেস ১৯৯, সিপিআইএম ১৪৮, বিজেপি ৮৭, আরএসপি ১, এনসিপি ১, নির্দল ২২ ও অন্যান্য ১৮। অপরদিকে পঞ্চায়েত সমিতির ২৭ টি আসনের মধ্যে শাসক দল ৪৭, কংগ্রেস ৩৪, সিপিআইএম ৩৩, বিজেপি ২২, নির্দল ১ ও অন্যান্য ৬ জন প্রার্থী দিয়েছে। জেলা পরিষদের তিনটি আসনে শাসক দল, কংগ্রেস ও সিপিআইএম প্রতিটি আসনেই প্রার্থী দিয়েছে।