সাউথ মালদা কলেজে রাতের অন্ধকারে গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য

0
রানা শেখ, হাফিজুর রহমান, আইনুল হক, সাকির শেখের অভিযোগ, রাতের অন্ধকারে ডাব্লু বি ৩৯-৫৫৪৬ নম্বরের একটি লরিতে করে গাছগুলি নিয়ে যাওয়া হয়, যার মালিক কলেজের পরিচালন সমিতির মেম্বার মিঠু শেখ। আমরা বিডিও, থানায়, এমনকি ডিএমকে লিখিতভাবে  জানিয়েছি বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের চিহ্নিত করে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হোক।
আনোয়ার শেখ নামে এক শিক্ষক জানান, আমি বুধবার পরিচালন সমিতির মিটিংয়ে বিষয়টা তুলে ধরেছি। কিন্তু আমি পার্টটাইম শিক্ষক বলে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি বরং আমাকে বিষয়টি জানাজানি করতে নিষেধ করে। বিষয়টা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার সোচ্ছার হলে আমাকে হুমকিও দেওয়া হয়।
হাবিবুর রহমান নামে এক অস্থায়ী কর্মী জানান, তিনজন নাইটগার্ড থাকা সত্বেও কিভাবে গাছ কেটে চুরি করা হল। আমরা টিআইসি থেকে শুরু করে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যকে জানিয়েছি কিন্তু তদন্ত শুরু না হয়ে বিষয়টি ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, সাউথ মালদা কলেজে চুরির ঘটনা নিত্য দিনের। চুরি ছাড়াও পার্ককে কেন্দ্র করে আর্থিক নয়ছয়ের অভিযোগ উঠেছে। ফুলের পার্কের জন্য নয় লক্ষ টাকা বরাদ্দ হলেও পার্কের ভিতর জঞ্জালে পরিপূর্ণ যদিও এবিষয়ে মুখ খুলতে চায়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ।