সংখ্যাতত্ত্ব, ধর্মীয় ও আর্থিক অবস্থার নিরিখে শিক্ষা ক্ষেত্রে বৈষম্য, মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি

0

সামাউল্লাহ মল্লিক, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : সংখ্যাতত্ত্ব, ধর্মীয় ও আর্থিক অবস্থার নিরিখে শিক্ষা ক্ষেত্রে বৈষম্য করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই অভিযোগ করেই ফ্র্যাটারনিটি মুভমেন্ট পশ্চিমবঙ্গ শাখার পক্ষ থেকে একটি চিঠি পাঠানো হল নবান্নে। চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলা হয়, ‘বাংলার শিক্ষা অঙ্গনে সম্প্রতি কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের কে সম্বর্ধনা দেওয়ার ক্ষেত্রে বাংলার মতো একটি রাজ্যের অভিভাবক হিসাবে আপনার রাজনৈতীক ভূমিকা বৈষম্যমূলক, দ্বিমুখী ; তা সংখ্যাতত্ত্ব, ধর্মীয় ও আর্থিক অবস্থার নিরিখে একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতি বঞ্চনা, অবমাননা, অবহেলা। ইহা দিবালোকের মতো আবার স্পষ্টরুপে প্রতিভাত।’


ফ্র‍্যাটারনিটি মুভমেন্টের সাধারন সম্পাদক আবু জাফর মোল্লা বলেন, ‘আপনি ক্ষমতায় আসার একবছরের মধ্যে বললেন আমি সংখ্যালঘু মুসলিমদের ৯০% কাজ করে দিয়েছি। আমি দশহাজার মাদ্রাসা করে দিয়েছি। এই সুযোগে বিজেপি আপনার সংখ্যালঘু প্রীতি নিয়ে গালিগালাজ করে পশ্চিমবাংলার আকাশে একটি সাম্প্রদায়িক আবহাওয়া তৈরি করে মানুষকে বিভাজন করছে। আর আপনি এই কাজে চতুরতার সহিত ইন্ধন দিচ্ছেন কেন, বাংলার মানুষ জানতে চায়। বাংলার মানুষ আপনাকে সংখ্যালঘুদের মূখ্যমন্ত্রী নয় বাংলার মানুষের মূখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চায়।’


তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘আপনি মাদ্রাসা দফতরের মন্ত্রী আর মাদ্রাসার কৃতি ছাত্রদের চুপি চুপি নবান্নে সম্বর্ধনা দিলেন কেন? নেতাজি ইন্ডোরে কেন নয়? আপনি মাদ্রাসা দফতরের মন্ত্রী হয়ে মাদ্রাসাগুলো শিক্ষকের অভাবে দিনের পর দিন করুণ অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আপনার আমলে যৎসামান্য যে চাকরিতে নিয়োগ হচ্ছে সেখানে সংরক্ষণের নিয়ম মানা হচ্ছে না। আপনি নেতাজী ইন্ডোরে রাজ্যের কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের ডাকলেন অথচ মাদ্রাসার কৃতিদের ডাকলেন না কেন ?

তাহলে কি তারা পশ্চিমবঙ্গের কৃতি নয় ,না নিন্দুকেরা মাদ্রাসায় সন্ত্রাস হয় বলে যে অপপ্রচার চালায় সেই ভয়ে ভীত হয়ে তাদের খুশি করতে আপনি এই সমস্ত কৃতিদের ডাকলেন না ?

 

আপনি সত্যিই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী না কোন বিশেষ সম্প্রদায়ের, উন্নয়ন বলতে কী সাইকেল, কন্যাশ্রী, ২৫০০ টাকা ইমাম ভাতা কেই বোঝান। বাংলার মানুষের হয়ে ফ্র্যাটারনিটি মুভমেন্ট এই প্রশ্ন গুলির উত্তর আশা করে।’

Advertisement
mamunschool