মিড-ডে-মিল, কন্যাশ্রী সহ শিক্ষকদের বেতনের দাবিতে সরব আন এডেড মাদ্রাসা বাঁচাও কমিটি

0

নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, কোচবিহার : মুখ্যমন্ত্রীর দশ হাজার আন এডেড মাদ্রাসার অনুমোদন দেওয়া কথা ঘোষণা করলেও আজও তা কার্যকর হয়নি। ২৩৪টি মাদ্রাসা অনুমোদন দেবার পর আর কোন মাদ্রাসাকে অনুমোদন দেয়নি সরকার। কিন্তু সেই মাদ্রাসা গুলি বর্তমানে নানান সংকটে ভুগছে। মাদ্রাসা গুলিতে নেই পানীয় জলের উপযুক্ত ব্যবস্থা, নেই শৌচালয়, পর্যাপ্ত বিল্ডিং। এমনটাই অভিযোগ ওয়েস্ট বেঙ্গল আন এডেড মাদ্রাসা বাঁচাও কমিটির।

Advertisement
head_ads

সমস্ত মাদ্রাসায় ছাত্র ছাত্রীদের পোশাক, মিড ডে মিল ও কন্যাশ্রী প্রকল্প চালু সহ স্কুল বিল্ডিং এবং শিক্ষক শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীদের বেতনের দাবিতে বৃহস্পতিবার রাজ্যের চারটি জেলার ডিএম কে ডেপুটেশন দিল তারা। তাদের আরো অভিযোগ তৎকালীন পশ্চিমবঙ্গ মাইনোরিটি এফেয়ার্স ও মাদ্রাসা এডুকেশন বোর্ডের জয়েন্ট সেক্রেটারি পিবি সালিম উক্ত সুবিধা গুলি কার্যকর করার নির্দেশ দিলেও আজও তার কিছুই হয়নি।

কমিটির রাজ্য সম্পাদক আব্দুল ওহাব মোল্লা টিডিএন বাংলাকে বলেন, “আমরা দীর্ঘ ৯৬ দিন অনশন করেছি। সেদিন অনশন মঞ্চে তৎকালীন তৃনমূলের এমপি মুকুল রায় আগামী বিধানসভা নির্বাচনের পর জুন মাসে আন এডেড মাদ্রাসার শিক্ষকদের বেতনের নোটিফিকেশন সহ বেতন চালু হবার আশ্বাস দিয়েছিলেন। এদিকে প্রায় দুবছর হয়ে গেল আজও কিছুই হলো না ২৩৪ টি সরকার অনুমোদিত আন এডেড মাদ্রাসার। তাই আমাদের দাবি আদায়ে আজকের এই ডেপুটেশন কর্মসূচি নিয়েছি।”

কমিটির পক্ষ থেকে এদিন স্বারকলিপি দেওয়া হয় কোচবিহার, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর ও উত্তর চব্বিশ পরগনার ডিএম কে। সমস্ত জেলাশাসক কমিটির দাবি গুলি ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দেবার আশ্বাস দেন।

head_ads