আদিবাসী মহিলাকে ধর্ষণ ও নৃশংস ভাবে হত্যার  প্রতিবাদে রাস্তায় নামছে মূলনিবাসী বহুজন মানুষ

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা: রায়গঞ্জে আদিবাসী মহিলাকে ধর্ষণ এবং নৃশংস ভাবে হত্যার  প্রতিবাদে আগামী শনিবার দুপুর ২টোয় রস্তায় নেমে ধিক্কার জানাতে চলেছে মূলনিবাসী বহুজন মানুষেরা। মুলনিবাসী ও বহুজন সমাজের পক্ষ থেকে এই প্রতিবাদে সামিল হতে সমস্ত মানবাধিকার সংস্থা এবং সমস্ত স্তরের নাগরিকবৃন্দকে আহ্বান জানিয়েছে।
যাদবপুর ইউনিভার্সিটির গবেষক ছাত্র,সুশীল মান্ডি বলেন,”কিছু ঘটনা ভাষায় প্রকাশ করতে গিয়ে শব্দের অভাব দেখা যায়। দিল্লীর নির্ভয়া কান্ড, কামদুনির গণধর্ষণ আর দুদিন আগের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমুন্ডি এলাকায় একজন আদিবাসী মহিলাকে গণধর্ষণ করে তার যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে যোনি সহ পেটের নাড়ি পর্যন্ত ক্ষত বিক্ষত করে দিয়েছে যেসব নরখাদকের দল তারা কোন সমাজের ফসল? কোন বিষাক্ত মাটিতে জন্মায় তারা? আজ আওয়াজ উঠছে চারদিক থেকে ধর্ষণের এই ঘৃণ্য সংস্কৃতিকে যদি সমূলে সমাজের বুক থেকে উপরে ফেলা না যায় তবে দলিত, আদিবাসী থেকে শুরু করে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়েরাও অচিরেই এই হিংস্র লালসার শিকার হবে।
তাই আসুন ধর্ষণের এই ঘৃণ্য রুচিকে দুপায়ে পদপিষ্ট করে খুঁজে বের করি নতুন পথ, যেখানে সমাজের প্রতিটি মেয়ে মাথা উঁচু করে নির্ভয়ে বাঁচতে পারবে।”
‌বিশিষ্ট কবি অভিমন্যু মাহাতো টিডিএন বাংলাকে বলেন,”ঘৃণ্যতম ঘটনা। নিন্দা জানানোর ভাষা নেই। আসলে এক শ্রেণির মানুষ আদিবাসীদের সস্তা ভাবে। আদিবাসী মহিলারা একারনে বেশি পুরুষদের লালসার শিকার হয়। তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অবিলম্বে দোষীরা গ্রেপ্তার হোক এবং প্রশাসন তাদের শাস্তি দিক।”
তথ্যচিত্র নির্মাতা সৌমিত্র ঘোষ দস্তিদারের মন্তব্য”এই ঘটনা নৃশংস,বর্বর,লজ্জার।পুরো সমাজ একেবারে অন্ধকারে ঢেকে গেছে।পাল্টা প্রতিরোধ না হলে এ জিনিষ চলতেই থাকবে।এদেশে কোন গনতন্ত্র নেই।”বহুজন সলিডারিটি মুভমেন্টসের নেতা শরদিন্দু উদ্দীপন থেকে এসসি,এসটি ওবিসি প্রতিবাদী মঞ্চের মুখপত্র মোকতার হোসেন মন্ডল,সকলেই এই রকম নারকীয় ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

head_ads