মুর্শিদাবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি নিয়ে ডাকা সভায় হামলা দুষ্কৃতীদের, জেলাজুড়ে বিক্ষোভ 

0

নিজস্ব সংবাদদাতা , টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ :  মুর্শিদাবাদে বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার দাবিতে ছাত্র সংগঠন এসএফআই এর সভায় দুষ্কৃতীদের  হামলার প্রতিবাদে শুক্রবার গোটা জেলা জুড়ে ধীক্কার মিছিলের পাশাপাশি বিকালে ৩৪ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালো  সিপিআইএম ও তার ছাত্র সংগঠন স্টুডেন্টস ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া। জেলার ফারাক্কা থেকে বহরমপুর পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় ৩৪ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করে হামলার জড়িত দুষ্কৃতিদের অবিলম্বে খুজে বের করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান তারা। 

উল্লেখ্য, বৃহ:বার এসএফআই পদযাত্রা করছিল ডোমকলের বিভিন্ন একালায়। পদযাত্রা পরিক্রমা করে বাগডাঙ্গা হাট প্রাঙ্গনে মিলিত হয় সভার উদ্দ্যেশে। কিন্তু সভাস্থল আশার আগেই দুষ্কৃতীরা   সভা লক্ষ্য করে দু রাউন্ড গুলি চালায় এবং বোমা নিয়ে হামলা করে বলে অভিযোগ। ঘটনায় বেশ কয়েকজন বাম কর্মী আহত হওয়ার পাশাপাশি আশিক হোসেন নামে এক  ছাত্রনেতা  গুরুতর জখম হয়েছে বলে খবরে প্রকাশ । ঘটনার পিছনে তৃনমূলের দুষ্কৃতীদের হাত রয়েছে বলে দাবি করেছেন ডোমকলের সিপিআইএম বিধায়ক আনিসুর রহমান। তিনি জানান,  মুর্শিদাবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবিতে বিভিন্ন জায়গায় আমাদের পথসভা হচ্ছিল। সভায় আমাদের সেক্রেটারি বক্তব্য রাখছিলেন। ঠিক সেই সময় সভা লক্ষ্য করে তৃনমূলের একদল দূস্কৃতি গুলি, বোমা চালায়। আমাদের একজন ছাত্রনেতা গুরুতর জখম হয়েছে এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তৃনমূল চাইছে বিরোধীরা যেন কোনো সভা না করতে পারে। এটাই প্রথম নয়, এর আগেও আমাদের উপর হামলা হয়েছে। আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছি। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে যথাযথ শাস্তির দাবিও জানিয়েছি।


ঘটনার নিন্দা করে এসএফআই এর জেলা ছাত্র যুব সভাপতি জোসেফ হোসেন জানিয়েছেন, অতীতেও ছাত্রদের উপর এমন আক্রমণ হয়েছে। সেদিনও থামাতে পারেনি আজও পারবে না।এই ঘটনার প্রতিবাদে রাজ্য ও জেলা জুড়ে আমরা  প্রতিবাদ কর্মসূচী ও ধীক্কার মিছিল করে দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছি।


যদিও এই ঘটনায় তৃনমূলের জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে  ডোমকলের পৌরপিতা তথা রাজ্য যুব নেতা সৌমিক হোসেন জানিয়েছেন, সভায় মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল দলকে গালমন্দ করে বক্তব্য দিচ্ছিল সি পি আই এম এর কর্মী সর্মথকরা। হাটের লোক গালমন্দ শুনে তার প্রতিবাদ করেছে। এর সঙ্গে রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই।