অসমে বাঙালি বিতাড়নের ষড়যন্ত্র চলছে – সাধন পুরকায়স্থ

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : অসমে নাগরিক পঞ্জির বংশবৃক্ষ পরীক্ষা নিয়ে হয়রানির অভিযোগ তুললো আমরা বাঙালি। ওই সংগঠনের পক্ষ থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি জারি করে অভিযোগ করা হয়, অসমে বাঙালি বিতাড়িত করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। আমরা বাঙালির সচিব  সাধন পুরকায়স্থ জানান,”অসমে নাগরিকপঞ্জি উন্নতিকরন প্রক্রিয়ায় বংশবৃক্ষ পরীক্ষা নিয়ে শুরু হয়েছে এক তুঘলকী কান্ড। নাগরিকপঞ্জি রাজ্য সমন্বয়ক বলেছেন, ৪৭ লক্ষ নামের বংশবৃক্ষে গরমিল ধরা পড়েছে। তাতে এক জেলার লোককে আরেক জেলায় ডেকে পাঠানো হচ্ছে। যারা কোনদিন বাড়ীর এলাকা থেকে বের হয় না, তাদেরকে  ৫০০/৬০০ দূরের কোনও জেলায় পাঠানো হচ্ছে। কাহাড় জেলার লক্ষিপুর সমষ্টির জয়পুরের শ্রুতি আচার্য্য ও উষা আশ্চর্য্যের নামে নটিশ এসেছে উদলগুড়ি জেলার মহানপুর নামক স্থানে গিয়ে বংশবৃক্ষের পরিচয় দিতে। তেমনি স্বাধীনতা সংগ্রামী প্রতাপ চন্দ্রধরের দুই মেয়ে যারা কাহাড় জেলার পলাই বাগান এলাকার বাসিন্দা শ্রীমতী দীপালি ধর ও মেলি ধরকে বাড়ী থেকে ৫০ থেকে ৬০ কিমি দূর বরখলা নামক স্থানে আসামী ২১তাং গিয়ে হাজিরা দিতে।”
ওই উদ্বাস্তু আন্দোলনের নেতা টিডিএন বাংলাকে আরও জানান,”এক জেলা থেকে দূরবর্তী অন্য জেলায় যদি প্রমান দিতে হয়, সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের পক্ষে যাওয়া বা প্রমান দেওয়া সম্ভব নয়। তাতে ৪৭ লক্ষ্যের মধ্যে বেশিরভাগের নাম নাগরিকপঞ্জিতে উঠবে না। চিহ্নিত হবে রাষ্ট্রহীন ভাসমান জন গোষ্ঠীতে। এই ব্যাপারে রাজনৈতিক দলগুলি ও কেন্দ্র সরকারের নীরবতাকে আমরা ধীক্কার জানাচ্ছি।”
আমরা বাঙালি সংগঠনের পক্ষ থেকে এদিন প্রেস রিলিজ দিয়ে দাবি করা হয়,অবিলম্বে প্রতিটি বাঙালির নাম নাগরিকপঞ্জিতে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।সাধনপুরকায়স্থর আরও মন্তব্য,”অসম সহ সমগ্র উত্তর পূর্বাঞ্চল থেকে বাঙালী বিতারণের যে পক্রিয়া ষড়যন্ত্র চলছে, তার বিরুদ্ধে দেশব্যাপী তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলার আহব্বান জানাচ্ছি।”