বাঁকুড়া ও পুরুলিয়ার তপশিলি অধ্যুষিত মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষকদের নিয়ে সভা ফোরামের

0

তোহাদ্দেস আলী, টিডিএন বাংলা, বাঁকুড়া: বেঙ্গল মাদ্রাসা এডুকেশন ফোরামের বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া জেলা কমিটির উদ্যোগে বৃহস্পতিবার বাঁকুড়ার দেশবন্ধু লজে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। তপশিলি অধ্যুষিত  দুই জেলার সমস্ত মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষকদের উক্ত সভায় আহ্বান জানানো হয়। তাঁরা মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা, মাদ্রাসার সমস্ত শূন্যপদে কমিশনের ষষ্ঠ এসএলএসটি উত্তীর্ণদের দ্রুত নিয়োগ ইত্যাদি বিষয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ আলোচনা করেন।


উদ্বোধনী বক্তব্য দেন ফোরামের জেলা সভাপতি রথীন চট্টোপাধ্যায়। ফোরামের রাজ্য সম্পাদক মীর রবিউল ইসলাম বলেন, ‘ফোরাম শুধুমাত্র সংখ্যালঘু এলাকাতেই নয়, তপশিলি অধ্যুষিত বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া জেলাতেও উপস্থিত আমরা, যার প্রমান আজকের এই সভা । তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বার্তা দেন, যারা এখনও ফোরামের সংগে যুক্ত হননি তারা অবিলম্বে যুক্ত হয়ে ফোরামের আন্দোলনকে শক্তিশালী করে কমিশনের  মাধ্যমে দ্রুত শিক্ষক নিয়োগের দাবিকে জোরদার করুন। তিনি প্রধান শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আপনারা মাদ্রাসায় পাঠরত ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ ও চাকুরীপ্রার্থীদের করুন অবস্থার কথা চিন্তা করে দ্রুত কমিশনের মাধমে শিক্ষক নিয়োগের আপিল করুন সুপ্রিমকোর্টে।


নতুনগ্রাম আহমেদিয়া হাইমাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আজিজুল আলম খান বলেন, ‘মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থাকে বাঁচাতে হলে অবিলম্বে সমস্ত শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগ করতে হবে।’ কমিশনের মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে মহামান্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করা হবে বলেও তিনি জানান।

কমিটির বিরুদ্ধে সকল মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে লালবাঁধ হুসিনিয়া সিনিয়ার মাদ্রাসার  প্রধানশিক্ষক নাজিমুদ্দিন বলেন, ‘কমিটির অত্যাচার থেকে মানুষকে মুক্তি দিতেই তৈরী হয়েছে কমিশন। স্বচ্ছ  নিয়োগের উত্তম পন্হা হল মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন। কমিটির দূনীর্তি ক্রিয়াকলাপ ইসলাম বিরুদ্ধ।’

উপস্থিত প্রধান শিক্ষকগণ নিজ নিজ মাদ্রাসার শূন্যপদের দীর্ঘ তালিকা তুলে ধরে কমিশনের মাধ্যমে দ্রুত শিক্ষক নিয়োগের দাবি জানান। এদিনের সভায় পরিচালন সমিতির শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি ওঠে। সভায় উপস্থিত ছিলেন লিয়াকত আলি, অনিমেষ সিংহ, মেকসার আলি প্রমুখ প্রধান শিক্ষক সহ জেলার অন্যান্য মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকবৃন্দ।