ফুরফুরায় কুরআনের মাহফিল থেকে অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ধ্বনিত হলো

0
সেখ সাদ্দাম হোসেন, টিডিএন বাংলা, ফুরফুরা:  ফুরফুরায় কুরআনের মাহফিল থেকে অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ধ্বনিত হলো সোমবার। ‘ফুরফুরা হেজবুল্লাহ সমাজ কল্যাণ সমিতি’-র উদ্যোগে ও ‘আল-হারামাইন মুজাদ্দেদীয়া ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট’- এর সহযোগিতায় প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও ফুরফুরায় পালিত হল কোরআন ও দুয়ার মজলিস। সেই মাহফিল থেকেই দেশ জুড়ে চলা অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে গর্জে ওঠেন পীরজাদারা। স্বাধীনতা সংগ্রামী যুগসংস্কারক পীর আবুবকর সিদ্দিকী(রহঃ) ইন্তেকাল করেছিলেন ৩রা চৈত্র। তার ওফাত দিবসকে স্মরণ করে এবং তার পাঁচ পুত্র ও অন্যান্য পিরসাহেবদের স্মরনেই প্রতি বছর ৪ঠা চৈত্র এই দুয়ার মজলিস পালিত হয় বলে জানান আল-হারামাইন মুজাদ্দেদীয়া ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের সম্পাদক পীরজাদা সাহিমউদ্দিন সিদ্দিকী। এদিনের অনুষ্ঠানে পীরজাদা সাহিম সিদ্দিকী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মুজাদ্দেদীয়া অনাথ ফাউন্ডেশনের কর্নধার পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী, আল-ফারহা মিশনের সাধারণ সম্পাদক পীরজাদা তামিম উদ্দিন সিদ্দিকী, মুজাদ্দেদ মিশনের সভাপতি পীরজাদা জিয়াউদ্দিন সিদ্দিকী, স্বনামধন্য ক্বারী হেদায়েতুল্লাহ সাহেব সহ অন্যান্য পীরজাদা ও অসংখ্য ভক্ত বৃন্দ। সন্ধ্যা থেকেই কোরআন পাঠ দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। স্বনামধন্য ক্বারী হেদায়েতুল্লাহর সুমধুর সুরের কোরআন পাঠ সকলকে মোহিত করে তোলে। মাঝে মাঝে আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে মজলিস মুখরিত হয়ে ওঠে। পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী দেশের বর্তমান অসহিষ্ণুতার কথা তুলে ধরে বলেন সকলে মিলে-মিশে ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকাটাই উচিৎ। সকলে মিলে বিভেদকামীদের বিরুদ্ধে এক হয়ে লড়াই করে সোনার ভারতের সেই সোনার দিন ফিরিয়ে আনতে হবে। পীরজাদা সাহিম সিদ্দিকী মরহুম পিরসাহেবদের জীবনী ও তাঁদের মানবসেবা মূলক কাজের আলোচনা করেন। এবং সর্ব ধর্মের প্রতি তাঁদের যে মহানুভবতা ছিল তার কথাও তুলে ধরেন। পীরজাদা তামিম সিদ্দিকী শিক্ষার গুরুত্বর কথা  আলোচনা করতে গিয়ে বলেন, “শিক্ষার শেকড়ের স্বাদ তেতো হলেও এর ফল মিষ্টি। তাই প্রয়োজন প্রকৃত অধ্যায়ন। জ্ঞানের মত মূল্যবান আর কিছুই হয় না।” সবশেষে বিশ্ব শান্তি ও মঙ্গল কামনা করে দুয়া করেন পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী।