রেবাউল মন্ডল, টিডিএন বাংলা, মালদা : শুরু গলিপথ দিয়ে বাড়িতে ঢুকতেই একজন মেয়ে এগিয়ে এলো।

কে?

আমরা সাংবাদিক।

আর দেরি না করেই সোজা আসন পেতে দিলেন রাজস্থানে খুন হওয়া মালদার শ্রমিক আফরাজুলের স্ত্রী। সামনে তাকাতেই নজরে এলো একটি মেয়ে। এলোমেলো চুল। দুচোখের জল মুছে ভাঙা কণ্ঠে বললো বসুন।

আফরাজুলের মেয়ে হাবিবা খাতুন দশম শ্রেণীতে পড়ছে। গোটা দেশ জুড়ে যখন ঈদের খুশিতে মাতোয়ারা তখন আফরাজুলের মেয়ে ঠাই বসে আছে ঘরের কোণে। নতুন জামা কেনা হয়নি তার। মেলেনি ঈদের চুড়িও। মেহেন্দির রঙে রঙিন হয়নি হাত।

বান্ধবীদের সাথে ঘুরতে যাওয়া হয়নি কোথাও। আজ ঈদের খুশির দিনেও শুধু বাবার কথাই মনে করছে বারবার।

ঈদের আনন্দ করবে না?

টিডিএন বাংলার এমন প্রশ্নের জবাবে হাবিবা বললো, কিছুই করবোনা। আব্বা নেই আর আনন্দ কিসের!