হা-হাকার আর্তনাদ গোটা দৌলতাবাদ জুড়ে, গভীর উৎকণ্ঠায় স্বজনেরা, চলছে উদ্ধারকাজ

0

নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ: করিমপুর থেকে যে বাসটি আজ ৫.৪৫ টায় ছেড়েছিল কে জানত সেটি এমন ভয়াবহ দুর্ঘটনার স্বীকার হবে। হা-হা-কার আর্তনাদ গোটা দৌলতাবাদ জুড়ে। গভীর উৎকণ্ঠায় পরিবারের লোকেরা অপেক্ষা করছেন প্রিয়জনদের দেখার জন্য। ৬-৭ ঘন্টা পেরোনোর পর এখন আর কোন যাত্রীরই বেঁচে থাকা সম্ভব নয় বলে মনে করছে প্রশাসন সহ স্থানীয়রা।


বাসটি ব্রীজের নীচেই আটকে রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। নৌকা নিয়ে স্থানীয়রা হাত মিলিয়েছেন বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ডুবুরীদের সঙ্গে। নদীর গভীরতা অনেক বেশি হওয়ায় উদ্ধার কাজে বিলম্ব হচ্ছে জানিয়েছেন উদ্ধার কারী দল। বাসটি কিছুক্ষনের মধ্যেই উদ্ধার করা সম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে। একে একে ভেসে উঠছে অভিশপ্ত যাত্রীদের জুতো, সানগ্লাস, ব্যাগ সহ ব্যবহার্য অন্যান্য জিনিসপত্র।


১৪০ টনের ক্রেন সহ তিনটি ক্রেনে যুদ্ধকালীন তৎপরতার সাথে চলছে উদ্ধার কাজ। বাসটি তুলতে চেষ্টা করেও বার বার দড়ি ছিঁড়ে যাচ্ছে। কোলকাতা থেকে এসেছে বিশেষ উদ্ধার কারী দল। এখনো পর্যন্ত ৭জনের দেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। কর্মসূচি কাটছাঁট করে ঘটনাস্থলে আসছেন মুখ্যমন্ত্রী। মৃতদের পরিবার পিছু ৫লাখ, গুরুতর আহতদের ১লাখ, আহতদের ৫০ হাজার করে ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।