সিরিয়ায় মার্কিন হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে কলকাতায় বাম ছাত্র যুবদের মিছিল

0
মার্কিন বোমারু বিমানে বিধ্বস্ত সিরিয়ার রাক্কা থেকে আলেপ্পো। ২০১১ সাল থেকে চলা রক্তক্ষয়ী গৃহযুদ্ধে কয়েক লক্ষ মানুষ নিহত হয়েছেন, শরণার্থী হয়েছেন সিরিয়ায়। লক্ষ্য একটাই, আসাদকে সরাও।  এদিন মিছিলে ছিলেন ডি ওয়াই এফ আই-র রাজ্য সভাপতি সায়নদীপ মিত্র, রাজ্য সম্পাদক জামির মোল্লা, সংগঠনের কলকাতা জেলা সম্পাদক ধ্রুবজ্যোতি চক্রবর্তী, সভাপতি ইন্দ্রজিৎ ঘোষ, এস এফ আই-র রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্য, কলকাতা জেলার সভাপতি অর্জুন রায়, সম্পাদক সমন্বয় রাহাসহ অন্যান্য ছাত্র-যুব নেতৃবৃন্দ।

এদিন বাম ছাত্র যুব সংগঠনের পক্ষ থেকে স্লোগান দেওয়া হয়, মানবতার পয়লা নম্বর শত্রু মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ তৃতীয় বিশ্ব থেকে হাত ওঠাও, পশ্চিম এশিয়া থেকে হাত ওঠাও। তাদের দাবি, জি ২০-র বিরুদ্ধে শক্তিশালী হোক নির্জোট আন্দোলন। মার্কিনমুখী বিদেশনীতি থেকে সরে আসুক মোদী, সুষমা স্বরাজরা।

মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সভায় ডি ওয়াই এফ আই-র রাজ্য সম্পাদক জামির মোল্লা বলেন, দেশে দেশে তেল, প্রাকৃতিক সম্পদ দখলের জন্য যুদ্ধ কখনও ছায়াযুদ্ধ চালিয়ে এসেছে আমেরিকা। পশ্চিম এশিয়ার একের পর এক দেশ ইরাক, লিবিয়া, আফগানিস্তান, লেবানন , সিরিয়া সর্বত্র শাসন জমানা পরিবর্তনের চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছে আমেরিকা, নিজেদের বশংবদ পুতুল সরকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে। এস এফ আই রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্য বলেন, উত্তর সত্য যুগে মিডিয়া সিরিয়া নিয়ে মিথ্যাচার শুরু করেছে। এমনভাবে দেখানো হচ্ছে যে মার্কিন ন্যাটো হামলায় কোনও শিশু, কোনও সাধারণ মানুষেরই মৃত্যু হয়নি, একতরফা ভাবে দায়ী করা হচ্ছে আসাদ সরকারকে। যুবশক্তি পত্রিকার সম্পাদক অর্ণব ভট্টাচার্য বলেন, মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ গত কয়েক দশক ধরে সম্পদ লুটের জন্য মরুভূমিতে পরিণত করেছে মধ্যপ্রাচ্য। দেশে দেশে বোমা বর্ষণ, যুদ্ধ চালিয়ে গিয়েছে। শরণার্থীর স্রোত আছড়ে পড়েছে ইউরোপের মূল ভূখণ্ডেও। নারীঘাতী, শিশুঘাতী মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে লড়াই চলবে।