আনন্দবাজারে অশ্লীল বিজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে সাঁওতালদের বিক্ষোভ মিছিল কলকাতায়

১৩ নভেম্বর একটি বিজ্ঞাপন সংস্থা আনন্দবাজার পত্রিকায় সাঁওতাল মহিলাদের নিয়ে অশ্লীল কথা লেখে বলে অভিযোগ। বিজ্ঞাপনে “সাঁওতাল রমণীর উদ্দাম যৌবনের ছোঁয়া” কথাটিতে আপত্তি জানিয়েছে সাঁওতালরা। পুরুলিয়ার বিডিও, এসডিও ও জেলাশাসককে তাঁরা স্মারকলিপি জমা দেয়। শনিবার সাঁওতালদের মিছিলে অংশ নিয়ে কবি অভিমন্যু মাহাতো বলেন,”সমাজটা দিন দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে। সাঁওতাল মেয়েদের নিয়ে এই নোংরা মানসিকতার প্রতিবাদ করা দরকার। তাই পথে নেমেছি।”
সাঁওতালরা বিজ্ঞাপন সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের কাছে আবেদন জানান। এদিন সাঁওতাল, আদিবাসী রা স্লোগান তোলে,-“কুরুচিকর অপমানজনক বিজ্ঞাপন দিয়ে সাওতাল জাতি সত্বাকে ধংস্ব করা যায় না, যাবে না,কুরুচিকর অপমানজনক বিজ্ঞাপনদাতাকে অবিলম্বে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দিতে হবে, কুরুচিকর অপমানজনক বিজ্ঞাপন প্রকাশ কারী আনন্দবাজার পত্রিকাকে নি:শর্ত ক্ষমা স্বীকার করতে হবে, এবিপি তুমি জেনে রাখো, তোমার নোংরামো মানছি না, মানবো না, এবিপি তুমি জেনে রাখো, তোমার নোংরামো তোমার নোংরা সংস্কৃতি দিয়ে সাওতাল নারি সমাজ কে কলুষিত হতে দেবো না, নোংরা বিজ্ঞাপন ছাপিয়ে সমাজ দুষন বন্ধ করো, আইন দেখিয়ে সামাজিক দায়বদ্ধতা এড়ানো যায় না যাবে না, কুলাঙ্গার সুমিত বিশ্বাস কে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে, কুলাঙ্গার মিলন দত্ত কে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে, কুলাঙ্গার সুব্রত দত্ত কে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে, বিবেক বিরোধী ট্রাভেলার্স হুশিয়ার,বিবেক বর্জিত এবিপি দূর হটাও, সাঁওতাল রমনীদের পন্যতে পরিণত করা যায় না, কুরুচিকর ইঙ্গিতপুর্ন বিজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে, লড়তে হবে একসাথে” প্রভৃতি।

মন্তব্য করুন -