21july Express photo Shashi Ghosh

তিয়াষা গুপ্ত, টিডিএন বাংলা: ২১ জুলাইকে ঘিরে বারেবারে আবর্তিত বাংলার রাজনীতি।

সাল ২০১৮

বাংলায় ৪২ এ ৪২ নিয়ে ভারত দখলের ডাক

সাল ২০১৯-

ঘুরে দাঁড়াবার ডাকলোকসভা নির্বাচনে বিজেপির অভাবনীয় উত্থানে তৃণমূলের মাথায় হাত। সামনেই বিধানসভা ভোট। বিজেপির পাখির চোখ বাংলা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসন্ন নির্বাচনে ঘুরে দাঁড়াতে ২১ জুলাইয়ের মঞ্চ ব্যবহার করেন কিনা, সেটাই দেখার।

শহীদ তর্পণ মঞ্চ হিসাবে ২১-এর পথচলা শুরুসেটাই আজ দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ইভেন্ট। বাংলার তো বটেই।

কংগ্রেস ভেঙে নতুন দলরাজ্যের ক্ষমতা দখলপরিবর্তনের ডাকজমি আন্দোলন,বাম জমানার অবসানতৃতীয় বিকল্পের ডাক – প্রতিবার স্লোগান বদলালেও ২১ জুলাইয়ের স্পিরিটটা একই রকম।

১৯৯৩ সালে রাইটার্স অভিযানে পুলিশের গুলিতে ১৩ জনের মৃত্যুর প্রতিবাদেই ২১ জুলাই-এর প্রতিবাদ। সমাবেশ। স্লোগান বদলেছে। লক্ষ্য বদলেছে। রাজনৈতিক কৌশলেও বদল এসেছে বারবার। ১৯৯৮ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের জন্মের পর জায়গাও বদলাল। কিন্তু তৃণমূল আর ২১ জুলাইকে আলাদা করার কোনও উপায়ই নেই। এই দিনে নিজের বক্তৃতায় দলের কৌশলগত অবস্থানও স্পষ্ট করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কখনও রাজ্যে তৃণমূল সরকার তৈরিকখনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। জমি আন্দোলন থেকে জাতীয় ক্ষেত্রে দলকে ছড়িয়ে দেওয়া। এভাবেই বদলে গিয়েছে ২১ জুলাইয়ের স্লোগান। আজ ঘুরে দাঁড়াতে তৃণমূল কোন স্লোগানে ভর করে সেটাই দেখার।