সম্পাদকীয়, টিডিএন বাংলা: স্বাধীনতার আগে বেশ কিছু মুসলিম কলকাতার মেয়র হয়েছিলেন। কিন্তু
১৯৫২ সালের পর থেকে আজ পর্যন্ত কোনও মুসলিমকে কলকাতার মেয়র পদে জায়গা দেওয়া হয়নি। কংগ্রেস জামানা গেছে,সিপিএম শাসিত বাম জামানা গেছে,এখন চলছে তৃণমূল আমল। কিন্তু কোনও দলই একজন মুসলিমকে মেয়র করার সাহস দেখায়নি। ঠিক কী কারণে একজন মুসলিম আজ পর্যন্ত মেয়র হননি তার জবাব কোনও ক্ষমতাসীন দল দেয়নি। সুধীরচন্দ্র রায়চৌধুরি,নির্মলচন্দ্র চন্দ্র ,নরেশনাথ মুখার্জি,সতীশচন্দ্র ঘোষ,
ডাঃ ত্রিগুণা সেন,বিজয়কুমার ব্যানার্জি ,কেশবচন্দ্র বসু,রাজেন্দ্রনাথ মজুমদার,চিত্তরঞ্জন চ্যাটার্জি, ডাঃ প্রীতিকুমার রায়চৌধুরি,গোবিন্দচন্দ্র দে, প্রশান্তকুমার শূর ,শ্যামসুন্দর গুপ্ত ,কমলকুমার বসু ,প্রশান্ত চ্যাটার্জি ,সুব্রত মুখার্জি ,বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য সহ শোভন চট্টোপাধ্যায়। এই দীর্ঘ লাইন শেষে শোভনের ইস্তফা নিয়ে যখন আলোচনা চলছে তখন অনেকেই বলছেন, এবার হয়তো কোনও মুসলিম বসতে চলেছেন কলকাতা পৌরসংস্থার মেয়র পদের চেয়ারে। শোভনের পদত্যাগের পর স্বাভাবিক ভাবে ডেপুটি মেয়র মেয়রের দায়িত্ব পালন করবেন। সেক্ষেত্রে ইকবাল আহমেদ মেয়র হওয়ার কথা। শোনা যাচ্ছে, ইকবাল আহমেদের শরীর অসুস্থ। তাই বিকল্প ভাবছে সরকার। সেক্ষেত্রে পৌরআইন পরিবর্তন করা হতে পারে। কিন্তু শেষমেশ কি কোনও মুসলিম মেয়র হবেন? নাকি অতীতের পথেই চলবে ‘ধৰ্মনিরপেক্ষ’ দলগুলি? সময়ই এর জবাব দেবে।