মুহাম্মদ নুরুদ্দিন, টিডিএন বাংলা: আবারও ঝাড়খণ্ডে পিটিয়ে মারা হল তাবরেজ আনসারী নামক এক মুসলিম যুবককে। পরিকল্পিতভাবে তাকে বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে চোর গুজব রটিয়ে দীর্ঘ ১৮ ঘন্টা কঠোর নির্যাতন চালানোর পর তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

ভিডিও ফুটেজ সহ এই সংবাদ ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। যে উগ্র দুস্কৃতিদের দ্বারা এরকম নৃশংস হত্যাকান্ড চালানো হয়েছে তারা ধর্মের নামাবলি গায়ে দিয়ে তাবরেজ কে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করে।২১বছরের তরতাজা যুবক যখন আর কথা বলতে পারছেননা তখনও তাকে জয় শ্রীরাম বলতে বাধ্য করা হচ্ছে।

এর পরও ভারতের বিরোধী রাজনৈতিক দল গুলির তেমন কোন প্রতিক্রিয়া নেই। না কোন মানবাধিকার সংগঠন তেমন আওয়াজ তুলছে। বিশেষ করে তথাকথিত সেক্যুলার দাবিদার কংগ্রেসের নীরবতায় হতবাক সাধারণ মানুষ। তাবরেজ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বলেই কী কারও মুখে প্রতিবাদ নেই? প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘সব কা সাথ সব কা বিকাশে’ এর কথা বললেও এই তার নমুনা? কী হচ্ছে দেশে? মনুষ্যত্ব কী বিদায় নিয়েছে? সাধারণ মানুষ সত্যিই হতবাক!