পাঠকের কলমে, টিডিএন বাংলা : ঠিক যে দিন থেকে আমার কানে মাদ্রাসা, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শব্দগুলি এসেছে সেই দিন থেকেই শুনছি আমাদের অধিকার বিশ্ববিদ্যালয় চাই আওয়াজটা আমাদের এই রাজ্যের মুর্শিদাবাদ জেলার শিক্ষা প্রেমিকদের। তাঁদের পাশে দাঁড়াতে অবশ্য কম করেননি বাকি জেলার বেশকিছু শিক্ষা প্রেমিকরা। মুর্শিদাবাদ জেলা দেশের বৃহত্তম দশটি জেলার মধ্যে একটি। এছাড়া এই রাজ্যের আরো তিনটি জেলা রয়েছে দশের তালিকাতে


উত্তর চব্বিশ পরগনা, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, বর্ধমান। বৃহত্তম দশটি জেলার তালিকায় এদের স্থান যথাক্রমে দ্বিতীয়, ষষ্ঠ, সপ্তম ও নবম আর সপ্তম/নবম স্থানে রয়েছে মুর্শিদাবাদ। এক সময় এই মুর্শিদাবাদ ছিল দেশের রাজধানী। এই মুর্শিদাবাদ জেলাতে ৮০ লক্ষ মানুষ বসবাস করেন কিন্তু এখনও পর্যন্ত একটাও বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে  উঠেনি এখানে।

মুর্শিদাবাদে বিশ্ববিদ্যালয় নেই, এটা কি শুধুই  বঞ্চনা?

এই রাজ্য থেকে আমরা কেন্দ্রের দিকে আঙ্গুল তুলে বলছি আবার কখনো অন্য রাজ্যের দিকে আঙ্গুল তুলছি  যে হয়ত দেশের নাম, ওই রাজ্যের নাম, তাজমহলের নাম বদলে দেবে। কারণ তারা প্রকাশ্যে যে কাজ করে চলছে এটাই বলতে হয়।


কিন্তু আমরা একবারো ভেবে দেখেছি কি ? মুর্শিদাবাদের নামটা প্রকাশ্য ভাবে পরিবর্তন না হলেও অপ্রকাশ্য ভাবে পরিবর্তন হয়ে রয়েছে। মুর্শিদাবাদ নামটা বিশ্ববিদ্যালয়বাদ হয়ে রয়েছে।
মুর্শিদাবাদে বিশ্ববিদ্যালয় না থাকাটা সুশিক্ষিত এবং প্রগতিশীল সমাজের জন্য খুবই লজ্জার বিষয় বলে আমি মনে করি।

               মোঃ সেখ আব্দুর রহিম

মৌড়ী রথতলা, আন্দুল মৌড়ী, হাওড়া।