টিডিএন বাংলা ডেস্ক : সারা বিশ্বে ডায়াবেটিস যে হারে বেড়ে চলেছে তাতে এটা ক্রমশ মহামারীর আকার ধারণ করেছে। এমনকী শিশুরা যেভাবে পড়াশুনা আর কম্পিউটারের জগতে মগ্ন হয়ে যাচ্ছে, তা ডায়াবেটিসকেই আহবান করছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সারাটা দিন স্কুলে কাটানোর পর দিনান্তে  আপনার বাচ্চাকে অন্তত মিনিট দশেক খেলার সময় দিন, এর ফলে ভবিষ্যতে ওর হার্ট এট্যাক, ষ্ট্রোক, ডায়াবেটিসের মত লাইফস্টাইল অসুখের ঝুঁকি কমবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সদ্য হওয়া একটি সমীক্ষা বলছে, যে সব বাচ্চা ইতিমধ্যেই ওবেস, কমরের মাপ বৃদ্ধি পাচ্ছে, শরীরের ইনসুলিনের কার্যকারিতা কমতে শুরু করেছে তাদের দীর্ঘ সময় ঘড়ি ধরে ক্লান্তিকর ব্যায়ামের বদলে অল্পসময়ের ঘাম ঝরানো খেলাধুলাতে উৎসাহ দেওয়া হোক। এটা অনেক বেশি কার্যকর। গবেষক ডা.জাষ্টিন মুর বলেছেন, ‘দীর্ঘ সময় ধরে দীর্ঘ সময় ধরে ক্লান্তিকর ব্যায়ামের বদলে হালকা ব্যায়াম বা খেলাধুলা করলে ক্যার্ডিওমেটাবলিক বেনিফিট আরও ভালো হয়। তাতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া যেমন ভালো থাকে, তেমনি পরিপাকক্রিয়াও সহজ হয়।’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলিনার এক ফরেস্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এই সমীক্ষাটি করা হয়েছিল,যেখানে প্রায় চার থেকে আঠারো বছর বয়সী এগারো হাজার বাচ্চা ও কিশরকে সামিল করা হয়েছিল। গবেষকরা ওইসব বাচ্চাদের বয়স, লিঙ্গ, কতটা  শারীরিক পরিশ্রম করেছে ইত্যাদি, বায়োমার্কার বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করেছিল। এছাড়াও দেখা হয়েছিল তাদের ওজন কতটা, রক্তচাপের মাত্রা, রক্তে ভালো কোলেষ্ট্রোরেল  ও খারাপ  কোলেষ্ট্রোরেলের মাত্রা, ট্রাইগ্লিসারাইড,গ্লুকোজ ইত্যাদির পরিমান।