টিডিএন বাংলা ডেস্ক: টলিউড তাঁর গ্ল্যামার বিচ্ছুরণের সাক্ষী থেকেছে। গতকাল প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে ঠাঁই করে নিয়েছেন নুসরত জাহান। স্বাভাবিকভাবে এতে তাঁর ভক্তের দল উল্লসিত হতেই পারেন। কারণ ইতিমধ্যেই তাঁর জনপ্রিয়তার পারদ চড়ছে। প্রশ্ন হল নুসরত কি বিবাহিত? যদি এই খবর সত্যি হয়, তাহলে অনেক ভগ্ন হৃদয়ের সম্ভাবনা।

শোনা যাচ্ছে, খুব ঘটা করে না হলেও, বেশ নীরবেই বিয়েটা সেরেছেন এই অভিনেত্রী। সূত্রের খবর খুব ছিমছাম ভাবে ভিক্টর ঘোষ ও তিনি গাঁটছড়া বেঁধেছেন। যদিও তাঁরা লিভ ইন পার্টনার হিসেবে নিজেদের পরিচয় দেন।

২০১১ সালে রাজ চক্রবর্তীর শত্রুতে অভিনয়ের পর তাঁকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। ইন্ডাস্ট্রির টপ মহিলা তারকাদের মধ্যে তিনি জায়গা করে নেন। যতদূর জানা গেছে, নীরবে বিয়ে সারার পর যুগলে বালিগঞ্জে বাস করেন। ভিক্টর জামশেদপুরের ছেলে।

একটি সূত্রে জানা গেছে, তাঁরা বিবাহিত দম্পতি। তবে পেশাগত ও ব্যক্তিগত কারণে তাঁরা সেই কথা স্বীকার করেন না। কিন্তু তাঁদের ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা বিয়ের বিষয়টি জানেন। যাঁরা খুব কাছে এঁদের দেখেছেন, তাঁরা বলেন, এঁরা আর পাঁচটা দম্পতির মতোই জীবন যাপন করেন। দু’জনে একসঙ্গে ওঠা-পড়ার সাক্ষী থাকেন। একে অপরকে তাঁদের কাজে প্রাণিত করেন।

ভিক্টরের ফেসবুক স্টেটাসে দেখা যাচ্ছে লেখা – ইন এ রিলেশনশিপ- অর্থাৎ সম্পর্কে আবদ্ধ। কী ধরণের সম্পর্ক সেটাই তো প্রশ্ন? অন্যদিকে ভিক্টরকে নুসরত জনসমক্ষে বয়ফ্রেন্ড বলে পরিচয় দেন। এব্যাপারে নুসরত বলেন, তাঁরা সম্পর্কে আবদ্ধ। খুব শিগগিরই বিয়ে করবেন। তিনি আরো বলেন, বিয়ে করলে গোটা শহর জানতে পারবে। ৭ দিন ধরে উৎসব হবে। গত ৬ বছর ধরে একসঙ্গে থাকার কথা নিজে স্বীকার করেন এই টলি তারকা।

বিয়ে হোক বা নাই হোক, তিনি যে সম্পর্কে আবদ্ধ, এটা তাঁর ভক্তকুলের হৃদয় ভেঙে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।