টিডিএন বাংলা ডেস্ক: গত রবিবার তিনি অভিনয় জগত থেকে বিদায় ঘোষণা করেছেন। হঠাৎ করে তার এমন সিদ্ধান্তে হতবাক পুরো বলিউড। অনেক গঞ্জনাও শুনতে হয়েছে নেটিজেনদের কাছে। তার পরেও কাশ্মীরী ‘দঙ্গল’ খ‍্যাত কন্যা জায়রা ওয়াসিম সমস্ত বিতর্ক ছুঁড়ে ফেলে ছুটছেন শান্তির খোঁজে। পরে সেই দিনই তিনি স‍্যোশাল মিডিয়ায় অভিনয় সম্পর্কিত সব পোষ্ট ডিলিট করেদেন। জায়রা অল্প সময়ের মধ্যেও তাঁর অসামান্য অভিনয়ের জন‍্য জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন জায়রা। কিন্তু বিবেকের দংশনে তিনি ছটফট করছেন। জায়রার অভিনয় জীবনের শেষ ছবি ‘দ্যা স্কাই ইজ পিঙ্ক’- এর প্রচারে না থাকার ঘোষণা করলেন। ‘মিড ডে’-তে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে জায়রা ‘দ্যা স্কাই ইজ পিঙ্ক’-এর প্রচারে থাকতে পারবেন বলে ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন ছবির নির্মাতাকে।

অক্টোবর মাসের ১১ তারিখ মুক্তি পাওয়ার কথা ফারহান আখতারের ‘দ্যা স্কাই ইজ পিঙ্ক’ ছবিটি। শোনা যাচ্ছে, ছবির নির্মাতারা অগস্টের শেষ থেকেই ছবির প্রচার শুরু করার কথা ভাবছেন। তবে তাঁকে যাতে এই প্রচার থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় সেই অনুরোধই নির্মাতাদের জানান জায়রা ওয়াসিম।

মাত্র পাঁচ বছর হল অভিনয় জগতে পা দেওয়া। কিন্তু এর মধ্যেই আচমকা অভিনয় জগত থেকে বিদায়, এমন সিদ্ধান্তে চমকে গিয়েছেন অনেকে। কেউ কেউ বলছেন, সামাজিক চাপেই জাইরা সিনেমা ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন। কেউ আবার বলছেন, কারণ যাই হোক না কেন জাইরা ওয়াসিমের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো উচিত।

এবিষয়ে জায়রা লিখেছিলেন, ‘বলিউড আমায় খ্যাতি-অর্থ-প্রতিপত্তি-ভালোবাসা সব দিয়েছে। বদলে কেড়ে নিয়েছে আমার বিশ্বাস, আমার ধর্ম, আল্লাহ-র করুণা। বিশ্বাস করুন, এই জীবন আমি চাইনি। তাই এই পরিণতি মন থেকে একেবারেই মেনে নিতে পারছি না। মনের সঙ্গে সারাক্ষণ যুদ্ধ করতে করতে আমি ক্লান্ত। পাঁচ বছরে বুঝলাম, বলিউড আমার জন্য নয়।’

গত রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় লম্বা একটি পোস্টে জায়রা ওয়াসিম লেখেন, “আমার কাজ, আমার পরিচিতি নিয়ে আমি খুশি নই। অনেকদিন ধরে আমার মনে হচ্ছে অন্য কেউ হওয়ার জন্যই আমি পরিশ্রম করছি। যখনই আমি বুঝতে শিখেছি কিসের জন্য আমি সময় দিচ্ছি, পরিশ্রম করছি, তখনই আমি বুঝেছি এখানে আমাকে মানালেও আমি এর জন্য উপযুক্ত নই। এই জগৎ আমাকে অনেক ভালবাসা, সমর্থন দিয়েছে। কিন্তু পাশাপাশি এর জন্য আমি আমার বিশ্বাস থেকে সরে গিয়েছি। আমার কাজের সঙ্গে আমার ধর্মবিশ্বাসের সংঘাত হচ্ছে।”

জায়রার মতে, তিনি যতই নিজেকে বোঝান যা তিনি করছেন সব ঠিক ততই তাঁর জীবন থেকে ‘আর্শীবাদ’ হারিয়ে যাচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, “নতুন ভাবে সবকিছু শুরু করার জন্য এ ছাড়া আর কিছু করার নেই আমার।”

প্রসঙ্গত ‘দ্যা স্কাই ইজ পিঙ্ক’ ছবিতে জায়রা ছাড়াও দেখা যাবে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও ফারহান আখতারকে। এই ছবির মাধ্যমেই তিন বছর পর হিন্দি ছবিতে ফিরছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এই ছবিতে প্রিয়াঙ্কা ও ফারহানকে জায়রার বাবা-মায়ের ভূমিকায় দেখা যাবে। এই ছবিটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি একটি ছবি। এখানে ১৩ বছর বয়সী আয়েশা চৌধরীর ভূমিকায় দেখা যাবে জায়রাকে। যে ‘পালমোনারি ফিবরোসিস’ আক্রান্ত। নিজের জীবনকে নিয়েই সে একটি বই লেখেন তিনি এবং মাত্র ১৯ বছর বয়সে তাঁর মৃত্যু হয়। ‘দ্যা স্কাই ইজ পিঙ্ক’ ছবির পরিচালনা করছেন সোনালী বোস।