এম. এস. আলম, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : টলিউডে অভিনয় করতে আসছেন ওপার বাংলার মডেল ও আদরের জামাই সিনেমার পার্শ্বচরিত্র খ্যাত যুবরাজ খান। এ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশে মোট দশ থেকে পনেরোটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তার প্রথম অভিনিত ছবি হলো ‘টাফ অপেরেশন’ এছাড়া তিনি ‘বলোনা কবুল’, ‘আদরের জামাই’, ‘তুমি আমার মনের মানুষ’ ও ‘দাদিমা’-র মতো উল্লেখযোগ্য সিনেমায় সাকিব খানের সাথে পার্শ্বচরিত্রে দক্ষতার সাথে অভিনয় করেছেন। বর্তমানে তিনি স্বদেশে ‘পিরিতের নাগর’ শীর্ষক সিনেমার মূখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন।

 

 

ইতিমধ্যে যুবরাজ খান টলিউডের পরিচালক অরুন চৌধুরির সাথে হিন্দি এবং বাংলা দুই ভাষার নায়ক হিসাবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। টিডিএন বাংলাকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাতকারে যুবরাজ বলেন, “আমি অভিনয় করবো সাহিত্যিক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রচিত চন্দ্রনাথ উপন্যাস এর চন্দ্রনাথ চরিত্রে।” জানা গিয়েছে, তার সাথে সুলোচন চরিত্রে অভিনয় করবেন বলিউডের খ্যাতনামা ও ডার্টিপিকচার সিনেমায় হৃদ্বয় কাপানো নায়িকা বিদ্যাবালান। এই সিনেমায় মিউজিক ডাইরেক্টর থাকবেন প্রিতম। তার বিপরিতে নায়িকার চরিত্রে কে অভিনয় করবেন তা তিনি স্পষ্ট না করলেও সবকিছু ঠিকঠাক হলে ২০১৮ তে নতুন বছরের শুরুতেই সুটিং এর কাজ শুরু হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

যুবরাজ খানই হবেন প্রথম বাংলাদেশী নায়ক যিনি বলিউড ও টলিউড একই সাথে একটি সিনেমার দুটি ভাষায় অভিনয় করবেন, এর আগে কোন বাংলাদেশী নায়ক একটি সিনেমার অভিনয় দুটি ভাষায় করেননি। দুই বাংলার ভাষা একই হলেও কথার মাধুর্য আলাদা এ নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘সেটা আমার কাছে কোন সমস্যা নয় আমি কলকাতার বাংলার মতো বাংলাভাষা বলতে পারি, কিন্তু হিন্দি বলার ক্ষেত্রে আমার আড়ষ্ঠতা ছিলো কিন্তু অনুশীলন করে তা ঠিক করে ফেলেছি এবং আমি এখন হিন্দি পড়তেও পারছি।