টিডিএন বাংলা ডেস্ক: শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে বড়সড় পরিবর্তন আনতে চলেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। এবার থেকে লিখিত পরীক্ষা ছাড়া আর কোন পরীক্ষাই দিতে হবে না চাকরি প্রার্থীকে। সেই সাথে উঠে যাচ্ছে কাউন্সিলং ও ইন্টারভিউ প্রক্রিয়াও। শুধুমাত্র লিখিত পরীক্ষার মেধার ভিত্তিতেই স্কুল গুলিতে নিয়োগ করা হবে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। সেই সাথে তুলে দেওয়া হচ্ছে মাল্টিপল র‌্যাঙ্কিং ব্যবস্থাও।

জানা যাচ্ছে আগামী এসএসসি থেকে থাকবে না কোন অ্যাকাডেমিক নম্বর, কোনও কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া, কোনও ওয়েটিং তালিকা। শুধুমাত্র লিখিত পরীক্ষায় পাস করলেই নিয়োগ পত্র দেওয়া হবে সফল প্রার্থীদের। এই সব পরিবর্তনের ক্ষেত্রে নিয়োগ প্রক্রিয়া আরও সহজ ও কম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এবার থেকে নবম-দ্বাদশ এর ক্ষেত্রে হয় নবম-দশম অথবা একাদশ-দ্বাদশ এর মধ্যে যে কোনো একটি পরীক্ষায় বসতে পারবেন প্রার্থীরা। এসএসসি তে ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া তুলে দিয়ে শুধুমাত্র পরীক্ষার মেধার ভিত্তিতেই নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছে অনেকেই। এক্ষেত্রে যোগ্য চাকরিপ্রার্থীরা অনেকটাই উপকৃত হবেন বলে মনে করছেন তারা।
তবে এতদিন নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে একাধিক অভিযোগ থাকত প্রার্থীদের। তবে এই প্রক্রিয়া কার্যকর হলে প্রার্থীদের অভিযোগও অনেকাংশে কমবে বলেই মনে করছে স্কুল সার্ভিস কমিশন।

যদিও এই পদ্ধতি নিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের অনেকেই বলছেন, দুর্নীতি ইন্টারভিউ থাকলেও হচ্ছে, ইন্টারভিউ না থাকলেও হবেনা তার কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে নিয়োগে স্বচ্ছতা আনার জন্য সবার আগে মানসিকতার পরিবর্তন দরকার।