ব্যর্থ স্বাধীনতা

সমীরণ খাতুন

স্বাধীনতা আজ বিকিয়ে চলেছে চৌরাস্তার মোড়ে,
স্বাধীনতার দাম আজ তিন টাকা, এককাপ চায়ের দরে।
স্বাধীনতা আজ বাবলু, জগাই, টুকাই, কালুর হাতে,
তিন তিনবার ধর্ষণ করেও মুক্ত তারা, হাসছে কলরবে!
যে পতাকার মান রাখতে মাতঙ্গিনীর বুক হল ঝাঁঝরা,
সেই পতাকা উন্মাদ পরেও লজ্জা নিবারিত হয়না!
স্বাধীনতার পূর্বে মানুষ করেছিলো অন্নের জন্য হাহাকার,
অসহার শিশু,পতাকা বিক্রি করে পায়না তার অধিকার!
রাজপথে যত হায়নার দল নারীকে করে অসম্মান,
অসহায় নারী বুকে জড়ায় তেরঙ্গা বাঁচাতে তার সম্মান!
স্বাধীনতা আজ নেতার পকেটে খেয়ালখুশির ফুলঝুরি,
বিশ্ব ভ্রমণ করে জনগণকে মিথ্যা স্বপ্ন দেখায় ভুরি ভুরি!
স্বাধীনতা আজ তাদের হাতে যারা বোঝেনা মানবতা,
দাঙ্গা লাগিয়ে, হত্যা করে, করছে চরম অরাজকতা।
আমরা ভারতবাসী তবুও প্রতি পদক্ষেপে চাই প্রমাণ,
এ কেমনতর অপমান বলো, জমে আছে অনেক অভিমান।
উচ্চ শিক্ষার ডিগ্রী আছে, মেধা আছে, আছে বেকারত্ব অফুরন্ত;
মায়ের অসুখ, বোনের বিয়ে, সংসারের খরচ, বেড়ে চলেছে গুরুদায়িত্ব।
দেশের যত রত্ন আছে, মেধা আছে কেউকি তাদের কথা ভাবছে?
সুযোগ বুঝে যত মেধা আমেরিকা কিনে নিচ্ছে।
যতই তুমি যোগ্যতম প্রার্থী হও দিতেই হবে টাকা,
টাকা ছাড়া নিম্নতম পদেও হবেনা তোমায় ডাকা।
ফুটপাতে যারা রাত্রি কাটায়, চাকার তলায় জীবন,
৭১তম স্বাধীনতার পরেও বলো কেমন তাদের ভুবন?
টাকার লোভে দুধের শিশু বিকিয়ে চলেছে রোজ,
তবুও তুমি করে চলেছ স্বাধীনতার পরম সুখের খোঁজ!
ইতিহাস কারো বাপ-দাদার নয়, অতীত দিনের কথা,
মুছে দিতে চায় স্থাপত্য তারা, বোঝেনা তার মাহাত্ম।
রোষের বশে কোপ দিয়েছ, আঘাত দিয়েছ মনে,
জাগবে যখন মানবজাতি, ঠাঁই হবেনা বনে।
যতই তুমি বিভেদ করো ভারত নয়তো কারো একার,
ভারত আমার, ভারত তোমার,ভারত আমাদের সবার।