“জীবন্ত লাশ”

সমীরণ খাতুন
আজ তুমি চলে গেছো বহুদূরে আলোকবর্ষ দূরে,
অভিমান আর না পাওয়া যন্ত্রণার হাহাকার বুকে নিয়ে।
তোমাকে ভাবতে গিয়ে ঝড়ো হাওয়ায় সব হলো এলোমেলো,
স্মৃতির ক্যানভাসে আজও তুমি,
নয়ন ঝাপসা হলো।
উজানি চাঁদ, সোনালি জ্যোৎস্না, তারার সামিয়ানা,
চাপা অভিমান বুভুক্ষু জীবন, স্বপ্ন দেখতে মানা।
আজও তোমার কথাগুলি হৃদয়ে বাজে অহরহ,
সুখী করতে চেয়েছিলে সেই মরমে চলছে আজও অন্তর্দাহ!
পিতামাতা শুধু সম্পদ দেখেছিল, দেখেনি তোমার মন,
চাপা অভিমানে তাদের তরে ত্যাগী আমি দেউলিয়া আজ আমার মন।
ভালোবাসার চোরাস্রোতে খুঁজে ফিরি তোমাকে আজও,
দগ্ধ এ বুকে, শুধুই হাহাকার, সবই স্মৃতি, ব্যর্থ অন্তর্দাহ!
বিরহ আর গোলাপ কাঁটায় শুধু না পাওয়ার জ্বালা,
ধূসর বাগানে বড়ো একা আমি শুধু মৃত্যুর প্রতীক্ষা!
কালের গর্ভে হারাতে বসেছে তোমার হরিণ নয়না সুমি,
হারিয়েছে সে সবুজের কথকথা, জীবন তার মরুভূমি!
আজও প্রতিধ্বণিত হয় তোমার কথা-আত্মহত্যা মহাপাপ!
এ কথার তরে বেঁচে আছে আজও আমার মতো হাজারো জীবন্ত লাশ!