দুই নদীর কথা

শ্যামাপ্রসাদ ঘোষ

দুঃখ কুড়াও বন্ধু
পথে নামলেই কুড়ানীর মতো কাগজের বদলে
দুঃখগুলো কুড়োও। হিরের মতো উজ্জ্বল দুঃখ।
ঘাসের নাকে আটকানো শিশির ফোঁটা দুঃখ।
কাদা মাখানো ধানমাঠে সাঁওতাল রমণীর নুয়ে পড়া দুঃখ।
বিধবা নারির সিঁথির মতো সাদা দুঃখ।
জন্ডিসে ভোগা শিশুর হলুদ চোখের মতো দুঃখ।
মধ্য রাতে নারীর বুকের উপর চেপে বসা কালো দুঃখ।

এই বিভিন্ন বর্ণের বিভিন্ন স্বাদের দুঃখ কুড়ানো শেষ হলে
তুমি জীবনের হাটে গিয়ে সুখ কিনতে পারবে।
দুঃখের কড়ি না জমালে তুমি কী দিয়ে সুখ কিনবে?

দুঃখের বদলে যদি তুমি অর্থ দিয়ে সুখ কেনো
তবে সে সুখ – তোমার খাঁচায় থাকবে না।
অচিন – পাখির মতো উড়ে যাবে কখন
তা তুমি বুঝতেও পারবে না।

তোমার যদি দুঃখের প্রতি ঘৃণা থাকে
তাহলে সেখানে যাও,
যেখানে দু দুটো নদী গড়াই আর পদ্মা
দুজন বড়ো মানুষের পুণ্য স্পর্শ নিয়ে
মানুষের দুঃখ কুড়িয়ে কুড়িয়ে ক্রমশ বুড়ো হয়ে যাচ্ছে।