শীত তোমার আমার

সমীরণ খাতুন

তোমার শীত বড়ো সুখকর অট্টালিকায় নরম কম্বলে মোড়া,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর ফুটপাত আর সম্বল মাত্র বস্তাজোড়া!
তোমার শীত বড়ো সুখকর বিছানায় বসে সুখটান গরম চায়ের কাপে,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর খুব সকালে উঠে কাপ ধুতে হাতটি কাঁপে।
তোমার শীত বড়ো সুখকর জ্যাকেট কোট টুপিতে মোড়া,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর একটামাত্র পাতলা পোশাক বড্ড নোংরা।

তোমার শীত বড়ো সুখকর মায়ের হাতের পিঠে,পুলি নলেন গুড়ের পায়েস,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর পিঠে পুলির সুগন্ধ পাই মেটেনা মনের খায়েশ।
তোমার শীত বড়ো সুখকর বড়োদিন, নিউইয়ার পিকনিক ভ্রমণ আনন্দময়,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর পেটের দায়ে দিনরাত পরিশ্রম ক্লান্তি জীবন দুঃখময়।
তোমার শীত বড়ো সুখকর, তোমার অট্টালিকা আমার রক্তে গড়া;
আমার শীত বড়ো কষ্টকর, ফুটপাত, ডাস্টবিন অন্ধকারে ভরা।

তোমার শীত বড়ো সুখকর, গিজার, হিটার গরম জলে স্নান,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর,একটি ছিন্নবস্ত্র সপ্তাহান্তে স্নান।
তোমার শীত বড়ো সুখকর, সায়াহ্নে ফার্মহাউস মদের বোতলে উল্লাস,
আমার শীত বড়ো কষ্টকর সর্দি কাশি জ্বর, সারারাত কষ্টেসৃষ্টে শ্বাস।
আমরা আছি বলেই তোমার বিলাসবহুল জীবন, তুমি বড়ো বাবু;
আমরা যদি কর্ম ছাড়ি ভেবে দেখো টাকা থাকলেও শীতে তোমায় হতেই হবে কাবু।