টিডিএন বাংলা ডেস্ক : মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের তহবিল ইস্যুতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে জরুরি অবস্থা ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা চ্যালেঞ্জ করে ১৬টি রাজ্য মামলা করেছে। নর্দান ডিস্ট্রিক্ট অব ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে এ মামলা করা হয়। ১৬টি রাজ্যের এই জোটের নেতৃত্বে রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া।

কয়েকদিন আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে জরুরি ক্ষমতা প্রয়োগ করে তহবিল সংগ্রহের ঘোষণা দেন। এর বিরুদ্ধে প্রতিটি পন্থা অবলম্বনের প্রত্যয় ঘোষণা করেছে বিরোধী ডেমোক্র্যাটরা। ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল হাভিয়ার বেসেরা বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রেসিডেন্সিয়াল ক্ষমতার অপব্যবহার বন্ধ করতে তারা আদালতে গেছেন।

হাভিয়ার বলেন, “প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একতরফাভাবে জনগণের ট্যাক্সের অর্থ লুট করছেন এবং এ কাজে তিনি কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে যাচ্ছেন। তার এমন কাজকে বন্ধ করতে আমরা তার বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমাদের বেশির ভাগ মানুষ মনে করেন, প্রেসিডেন্টের অফিস একটি থিয়েটার মঞ্চ নয়।”

সোমবার করা এই মামলায় প্রাথমিক স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়েছে। এর ফলে যতক্ষণ আদালতে আইনি লড়াই চলবে ততক্ষণ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তার এ বিষয়ক কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখতে হবে। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি। এ নিয়ে তীব্র উত্তেজনা চলছে মার্কিন রাজনীতিতে। তার এ সিদ্ধান্তের ঘোর বিরোধী ডেমোক্র্যাটরা। এমনকি তার নিজ দলের অনেকেই এর বিরোধিতা করেন। এ ইস্যুতে এ যাবতকালের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দিন মার্কিন সরকারের কর্মকাণ্ড অচল ছিল। কংগ্রেস তার ওই দেয়াল নির্মাণে অর্থ বরাদ্দ দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছে। এরপরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জরুরি অবস্থা ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেন।

Advertisement
mamunschool